সংবাদ সম্মেলনঃ আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ভুমিদস্যু খতিব উদ্দীন সন্ত্রাসীদের দ্বারা ভয়ভীতি দেখিয়ে সাড়ে ৫ শতক সম্পত্তি দখলের পায়তারা করছে অভিযোগ বলে অভিযোগ করেছেন চিরিরবন্দর উপজেলার নশরতপুর গ্রামের আলহাজ্ব মাইজার রহমান।

সোমবার (১৬ অক্টোবর) সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ জানমাল ও সম্পদ হারানোর ভয়ে-ভীত বৃদ্ধ মাইজার রহমান ও তার পরিবার। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমি ও আমার পুত্র শহিদুল ইসলাম কিসমত নশরতপুর মৌজার সিএস ১২৮৫ ও এসএ ১৫৯৮ নং খতিয়ানের ৩৪৩৮ দাগের ৫ দশমিক ৫ শতক জায়গার ক্রয় সুত্রে মালিক।

দীর্ঘদিন ধরে আমরা ওই সম্পত্তি ভোগ দখল করে আসছি। ইতিমধ্যে একই গ্রামের মৃত মজেতুল্লাহর পুত্র ভুমিদস্যু খতিব উদ্দীন ভুয়া দলিল সৃষ্টি করে আমাদের ওই জমিটি দখলের জন্য নানা রকমের ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। খতিব উদ্দীন জমিটি ছেড়ে দেয়ার জন্য মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোসহ জীবননাশের হুমকী পর্যন্ত দিচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, ওই ভুয়া দলিল বাতিলের জন্য তার বিরুদ্ধে আদালতে ১৭৬/২০০৯ বাটোয়ারা মোকদ্দমা করেছেন। আদালত শুনানী অন্তে ১নং বিবাদি খতিব উদ্দীনের বিরুদ্ধে ৩১/০৮/২০১৭ তারিখে স্থিতি অবস্থা বজায় রাখার নির্দেশজারী করেছেন। আদালত থেকে নিষেধজ্ঞা জারি হওয়ায় খতিব উদ্দীন ক্ষিপ্ত হয়ে আমাদের প্রতিষ্ঠান ও আমাদের ব্যক্তিগতভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করার জন্য নানা ষড়যন্ত্র শুরু করেছে।

তিনি জানান, এর আগেও প্রভাব খাটিয়ে ইউপি, থানা এবং এসপি অফিস থেকে নোটিশ করে ডেকে নিয়ে গিয়ে জমি ছেড়ে দিতে বলেছে নইলে সে আমাদের শান্তিতে বসবাস করতে দিবে না, এমন কি হত্যার হুমকী পর্যন্ত প্রদান করেছে। তাই যে কোন সময় আমাদের পরিবারের সদস্যদের বড় ধরনের ক্ষতির আশংকা রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পিতা-পুত্র সরকারের নিকট জানমাল ও সম্পদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার অনুরোধ জানিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য