বিরলের পল্লীতে কলার বাগানের কলা চুরিকে কেন্দ্র করে মারপিটে নিহত হয়েছে এক কলা বাগান মালিক। পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগিতায় একজনকে আটক করে স্থানীয় জনতা পুলিশে সোপর্দ করেছে। নিহতের স্ত্রী বেবী বেগম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জানা গেছে, উপজেলার আজিমপুর ইউপি’র রাজুরিয়া (স্কুলপাড়া) গ্রামের হুসেন আলীর পুত্র কলা বাগান মালিক আনোয়ার হোসেন রানু (৪৬) এর কলা বাগান থেকে একটি কলার থোকা (কাইন) চুরি হয় ১৪ অক্টোবর শনিবার।

চুরি হওয়ার পরদিন রোববার সকালে আনোয়ার হোসেন ব্রাশ করার সময় বাগানের মধ্যে একই গ্রামের শাহাপাড়ার ওহিদুলের পুত্র করিমুল হক (২৫) ও সাহের মোহাম্মদের পুত্র মঙ্গলু (৩০) কে দেখতে পেয়ে কলা চুরির বিষয়ে বলতে গেলে উভয়ের সাথে বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে মারপিটে আনোয়ার হোসেন বাম চোখের নীচে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে আহত হয়।

তাঁকে স্থানীয় পল্লীচিকিৎসকের নিকট চিকিৎসা শেষে বাড়ীতে নিয়ে গেলে বিকালে সে মারা যায়। ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হায়দার স্বপনের সহযোগিতায় স্থানীয় জনতা করিমুল হককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ সন্ধ্যায় লাশ উদ্ধার করে। রাত ৭টায় এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ জানান, লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়া হয়েছে। আটককৃতকে পুলিশী হেফাজতে রাখা হয়েছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য