আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধা শহরের পলাশপাড়ার হাবিবুর রহমান, তার স্ত্রী ও পুত্র-কন্যাসহ অন্যান্য সন্ত্রাসীদের নিয়ে মা মৃত হাছেন আলীর স্ত্রী এলিজা বেওয়া ও তার বোন উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এব্যাপারে মা এলিজা বেওয়া বাদি হয়ে ৬ অক্টোবর শুক্রবার সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। সদর থানা পুলিশ পুত্র হাবিবুর রহমান ও পুত্র বধু মেহেরুন্নাহার রিনাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করে।

মামলার বিবরণের উল্লেখ করা হয়, সন্ত্রাসীরা এলিজা বেওয়া এবং তার মেয়ে খাদিজা আকতার সম্পা মারপিট করে এবং তাদের শ্লীলতাহানি ঘটায়। এছাড়া বসতবাড়ির স্টীল আলমারী থেকে ১ লাখ ২৬ হাজার টাকার স্বর্ণের অলংকার ছিনতাই করে নিয়ে যায়। থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে এ দু’জন ছাড়াও হাবিবুর রহমানের পুত্র আলী আহমেদ রহিদ, কন্যা রিফাত লাবণ্য রূপাসহ থানাপাড়ার বিপ্লব মিয়া, তার স্ত্রী রেহেনা বেগম এবং উত্তর গিদারির মৃত নুরুজ্জামানের ছেলে জোহানকেও আসামী করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এলিজা বেওয়ার একমাত্র পুত্র হাবিবুর রহমান, পিতা মৃত হাছেন আলীর স্বাক্ষর জাল করে ১৯৯৬ সালের ১৩ মে তারিখে ৩২৮২ নং একটি জাল হেবাবিল এওয়াজ দলিল সৃজন করে। পরে গোপনে ওই জাল দলিল মুলে মা এবং বোনদের অংশের সমুদয় পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখল করে নেয় এবং বিক্রি করে দেয়।

এব্যাপারে হাবিবুর রহমানের মা ও অংশিদার বোনরা বিষয়টি জানার পর গাইবান্ধা সিনিয়র জজ আদালতে উক্ত জাল দলিল বাতিল করার জন্য একটি মামলা দায়ের করে (১৬০/১৪)। আদালত উক্ত মামলার রায়ে ওই হেবাবিল এওয়াজ দলিলকে জাল ও যোগসাজসী হিসেবে ঘোষণা করে। এরপর থেকেই উক্ত হাবিবুর রহমান তার মা ও বোনদের উপর হামলা এবং মিথ্যা হয়রানীমূলক মামলা দায়েরসহ নানাভাবে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য