পরকীয়ার অপবাদ দিয়ে ২ শিশু হত্যার ৫ দিনের মাথায় পাওয়া গেল ৭ মাস বয়সী হাসিবুল হাসানের লাশও। আজ শুক্রবার বিকেলে বকবান্দা এলাকার জিঞ্জিরাম নদী থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করেছে। এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে একই নদী থেকে আড়াই বছর বয়সী আয়শা সিদ্দিকার লাশ উদ্ধার করা হয়। বিষয়টি নিয়ে রৌমারী থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, সাংসারিক নানা অভাব-অনাটনের কারণে গত দেড় বছর আগে রৌমারী উপজেলার পাঠাধোয়াপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমান রোজগারের জন্য ওমানে চলে যান। বাড়িতে কোন পুরুষ মানুষ না থাকায় বাজার খরচ ও অন্যান্য প্রয়োজনে তাদের বাড়িতে যাতায়াত করতো আব্দুর রহমানের মামাতো ভাই ফরহাদ হোসেন। তবে ওই গ্রামের মাতাব্বররাসহ কিছু মানুষ ফরহাদের ওই বাড়িতে যাতায়াত পছন্দ করতো না। তারা ভাবতো আব্দুর রহমানের স্ত্রী শিরিনের সাথে ফরহাদের পরকীয়ার সম্পর্ক রয়েছে। ফলে ওই গ্রামের কিছু ছেলেপুলে ফরহাদকে ধরার জন্য রাত জেগে পাহারা দিতো।

ঘটনার দিন গত সোমবার (২ অক্টোবর) রাতে ফরহাদকে ওই এলাকায় দেখে চোর চোর বলে ধাওয়া করে। একপর্যায়ে তাকে ধরে বেদম মারপিট করে এবং ওই গ্রামের মাতাব্বর আশরাফ আলীর বাড়িতে এক সালিশ বৈঠকের ব্যবস্থা করে। সালিশে ফরহাদকে আবারও মারপিট করা হয় এবং চোখ বেধে ওই শিশু দুটিকে ছিনিয়ে নিয়ে নদীতে ফেরে হত্যা করা হয়।

সহকারী পুলিশ সুপার (রৌমারী সার্কেল) সিরাজুল ইসলাম জানান, ‘ঘটনাটি নিয়ে নিয়মিত মামলা করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে কারও নাম প্রকাশ করা যাচেছ না। আসলে শিশুদুটিকে কে হত্যা করেছে বা হত্যা করতে প্ররোচিত করা হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য