যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসের কনসার্টে হামলাকারী একজন ‘অসুস্থ’ ও ‘উন্মাদ’ লোক বলে মন্তব্য করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

রোববারের ওই কনসার্টে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত হয়েছে ৫৯ এবং আহত হয়েছে ৫২৭ জন।

হামলাকারী হিসাবে চিহ্নিত স্টিভেন প্যাডক কি কারণে এত বড় হত্যাযজ্ঞ ঘটালেন তা নিয়ে এখনও ধাঁধাঁয় রয়েছেন তদন্তকারীরা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেছেন, “প্যাডক একজন অসুস্থ মানুষ, উন্মাদ লোক। আমার ধারণা সমস্যা অনেক। আমরা তার বিষয়টি খুবই গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখছি।”

তবে হামলার ঘটনাটিকে দেশের অভ্যন্তরীন সন্ত্রাস বলে মনে করেন কিনা সে প্রশ্নের কোনও জবাব দেননি ট্রাম্প। অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে ট্রাম্প বলেন, আমরা সামনের দিনগুলোতে অস্ত্র আইনের বিষয়টিতে দৃষ্টি দেব। এ ব্যাপারে বিস্তারিত আর কিছু বলেন নি তিনি।

এর আগে সোমবার হোয়াইট হাউজের এক বিবৃতিতে ট্রাম্প লাস ভেগাসে হামলার ঘটনাকে ‘খাঁটি শয়তানি’ আখ্যা দেন।

হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে আত্মহত্যা করা প্যাডককে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) তাদের লোক বলে দাবি করলেও তদন্ত কর্মকর্তারা এখনওএ ঘটনার সঙ্গে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের কোনো যোগসূত্র পান নি।

তবে কোনও কোনও তদন্তকারী হামলাকারীর মানসিক অসুস্থতার বিষয়টি উড়িয়ে দিচ্ছেন না। যদিও মানসিক অসুস্থতার বিষয়টি নিশ্চিত নন তারা।

ম্যান্ডাল বে হোটেলে হামলাকারীর কক্ষ থেকে পুলিশ ২৩ টি বন্দুক এবং তার বাড়ি থেকে আগ্নেয়াস্ত্র এবং বিস্ফোরক উদ্ধার করেছে। বোস্টন ২৫ নিউজ চ্যানেল হোটেল রুম থেকে হামলায় ব্যবহৃত বন্দুকের ছবি পেয়েছে।

হামলার ঘটনায় অন্য আর কোনও সন্দেহভাজন নেই বলে পুলিশ জানালেও তদন্তকারীরা এখন গুরুত্ব দিচ্ছেন প্যাডকের সঙ্গী ৬২ বছর বয়স্ক মারিলু ডেনলিকে। এই নারী বন্দুকধারীর সঙ্গে খুব সম্ভবত টোকিও ভ্রমণ করেছিলেন বলে ধারণা কর্মকর্তাদের।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য