মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাঁও থেকেঃ ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে মোটর সাইকেলের ধাক্কায় সুনিতা (১১) নামের ৫ম শ্রেণির ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে।

এ ঘটনায় মোটরসাইকেল চালকসহ আহত হয়েছে আরও ২ জন। আহতরা ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতাল ও বালিয়াডাঙ্গী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার সময় বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের সিন্দুরপিন্ডি নামক স্থানে এ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত সুনিতা (১১) উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের আঠিয়াবাড়ী গ্রামের সুবাস চন্দ্রের মেয়ে ও লোহাগাড়া বঙ্গভিটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী।

আহতরা হলেন: বালিয়াডাঙ্গি উপজেলার চাড়োল গ্রামের জসিদের স্ত্রী মানসী (২২) এবং আঠিয়াবাড়ী গ্রামের সুজন আলীর ছেলে পলাশ (১৯)।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে পলাশের বাবা সুজন বলেন, ধনতলা ইউনিয়নের দোলুয়া মেলা থেকে সুনিতা ও মানসী পলাশের মোটরসাইকেলের পিছনে বসে বাড়ি ফিরছিলেন। সিন্দুরপিন্ডি নামক স্থানে এলাকার কয়েকজন বখাটে ছেলে দুটি মোটর সাইকেল নিয়ে পিছন দিক থেকে তাদের ধাক্কা দিলে মোটরসাইকেলের আরোহী পলাশ, পিছনে বসে থাকা সুনিতা ও মানসী পাকা রাস্তায় পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই সুনিতার মৃত্যু হয়। স্থানীয় লোকজন দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে বালিয়াডাঙ্গী হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

বালিয়াডাঙ্গী হাসপাতালের কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার ডা: উম্মে কুলসুম মুন্নি বলেন মাথায় প্রচন্ড আঘাতের ফলে ঘটনাস্থলেই সুনিতার মৃত্যু হয়েছে। আহত মানসীর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে এবং পলাশকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি মোস্তাফিজার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য