দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলায় চলতি মৌসুমে আমন ক্ষেতে খোল পচা রোগ দেখা দেওয়ার কারণে কৃষকেরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। ভারত থেকে আসা স্বর্ণ জাতের ধানে এ রোগের আক্রমণ হয়েছে।

কোন ঔষুধ বা প্রাকৃতিক নিয়মেও ধান ক্ষেত রক্ষা করা যাচ্ছে না। কৃষি বিভাগ থেকে কোন পরামর্শ ও সহযোগিতা না পেয়ে হতাশ কৃষক।

কৃষকদের অভিযোগ অস্বীকার করে কাহারোল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কৃষি কর্মকর্তা জানান, প্রাকৃতিক উপায়ে ভাইরাস জনি এ রোগের হাত থেকে রক্ষা জন্য কৃষকদের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

চলতি মৌসুমে কাহারোল উপজেলায় ১৪ হাজার ৫৫৪ হেক্টর জমিতে আমন চাষ করা হয়েছে। আবহাওয়া ও পরিবেশ অনুকূল থাকায় ধান গাছ ও হয়েছে ভালো। মাঝামাঝি সময়ে এসে ধান গাছ খোল পচা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

উপজেলায় ৮০ ভাগ কৃষক এবার স্বর্ণাজাতের ধান আবাদ করেছেন। এই ধানটিতে রোগের পাদুর্ভাব বেশি দেখা দিয়েছে। নানা রকম ওষুধ স্প্রে করে কৃষকরা তাদের কষ্টের ফসল বাঁচাতে মারিয়া হয়ে উঠেছে। বহু অর্থ ব্যয় করে কীটনাশক দিয়েও ফল পাচ্ছে না।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য