অবশেষে উদ্যমী ২২ যুবক ও ছিনাই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যানের অক্লান্ত পরিশ্রমে কুড়িগ্রামের রাজারহাটে বন্যায় ভেঙ্গে যাওয়া ব্রীজটির উপর বাঁশের সাঁকো নির্মিত করা হয়। ফলে ওই বিছিন্ন এলাকার ৬টি গ্রামের প্রায় ১০ হাজার মানুষের যাতায়াতের দূর্ভোগ লাঘব হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে ওই বাঁশের সাঁকোটি উন্মুক্ত করে উদ্বোধন করেন কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি আলহাজ¦ মোঃ জাফর আলী।

এ সময় প্রধান উদ্যাক্তা ছিনাই ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক সাদেকুল হক নুরুর সঞ্চালনায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন-রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রফিকুল ইসলাম, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি চাষী এম এ করিম, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্জ আবুনুর মোঃ আক্তারুজ্জামান, ওসি মোখলেসুর রহমান, জেলা পরিষদ সদস্য মোঃ আব্দুস সালাম, সাহেদুল হক বসুনিয়া, প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এ বাবলু, সাধারন সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম, এলাকাবাসীর পক্ষে হাসান আলী মন্ডল ও কোরবান আলী প্রমূূূূখ।

উল্লেখ্য, গত ১৩ আগষ্ট দিবাগত রাতে ধরলা নদীর বাঁধ ভেঙ্গে স্বরণকালের এক ভয়াবহ বন্যায় ছিনাই গেট-কালুয়া বাজার পর্যন্ত রাস্তার পথিমধ্যে পাকা রাস্তার ব্রীজটি ভেঙ্গে জনদূভোর্গের সৃষ্টি হয়। এ দুর্দশা লাঘবে অত্র এলাকার ২২ যুবকের উদ্যোগে এলাকার মানুষের নিকট কয়েক শতাধিক বাঁশ সংগ্রহ করে অত্র ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সাদেকুল হক নুরুর সার্বিক সহযোগীতায় ৮০ ফিট দৈর্ঘ্য ও ৩০ ফিট চওড়া মনোমুগ্ধকর সাঁকোটি মাত্র দুই সপ্তাহের ব্যবধানে তৈরি সম্পন্ন করে। বিছিন্ন এলাকার মানুষের যাতায়াতের জনদূর্ভোগ লাঘব হওয়ায় এলাকাবাসীরা উদ্যাক্তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য