মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাঁও থেকেঃ উপহার নানা রকমই হয়। তবে বই হচ্ছে সেরা উপহার। বই যেমন হতে পারে দারুণ উপহার তেমনি বই পাল্টে দিতে পারে মানুষের মনোজগৎ। কেননা বই মানুষের মনকে সুন্দর করে, সমৃদ্ধ করে। মানুষের জীবন, সমাজ-রাষ্ট্রকে পাল্টে দিতে সাহায্য করে। বই পড়ার মধ্য দিয়ে মানুষ তার মনকে উন্নত ও সুন্দরের পথে নিয়ে যেতে পারে। শিশু সাংবাদিকতায় আরও দৃঢতার সাথে কাজ করতে বই উপহার দিলেন বিডি নিউজ । দেশ সেরা নিউজ প্রোটাল বিডি নিউজ ২৪ এর পক্ষ থেকে এক সাথে ২৯টি বই উপহার হিসেবে পেয়ে অনেক খুসি শিশু সাংবাদিক- রহিম শুভ।

বইগুলি শিশু সাংবাদিক রহিম শুভকে কুরিয়ার এর মাধ্যমে বইগুলি তার কাছে পাঠিয়েছে বিডিনিউজ এর হ্যালো’র নিউজ এডিটর নুরুন নাহার মওয়া।

শিশু বিষয়ে অনেক গুলি নিউজ করায় এক সাথে ২৯টি বই উপহার হিসেবে পেল সে, তার অভিব্যাক্তি প্রকাশ করে শিশু সাংবাদিক রহিম শুভ বলেন, আমি রহিম শুভ। আমি উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা ঠাকুরগাঁও থাকি। দেশ সেরা নিউজ পোর্টাল বিডিনিজের জনপ্রিয় বিভাগ হ্যালোতে শিশু সাংবাদিক হিসাবে কাজ করি। ঢাকায় বিডিনিউজের অফিসে ২বার যাওয়ার সুযোগ হয়েছে আমার। সেখানে পরিচয় হয় বিডিনিউজের উচ্চতর কর্মীদের সাথে। সাথে ছিল আমার সহকর্মীরা যারা হ্যালোতে নিয়মিত নিউজ করে।

আমারও বেশ কিছু নিউজ প্রকাশ হয় । কয়েকদিন আগে ফেসবুকের মাধ্যমে দেখলাম যারা ভাল নিউজ করে ও নিয়মতিন নিউজ পাঠায় তাদের জন্য বই উপহার আসছে। তাদের মধ্যে আমার নামও লিখা ছিল। আমি তখন অপেক্ষা করছি কখন বই আসবে আর কোন কোন লেখকের বই আসবে। আসলে বই পাওয়ার মজাটাই আলাদা। অবেশেষ গত শনিবার সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস থেকে আমাকে ফোন দিল আপনার নামে একটি পার্সেল আসছে নিয়ে যান। আমি তো বুঝতে পারছি যে বই আসছে। গেলাম সুন্দরবন কুরিায় সার্ভিসে। এত বড় বইয়ের প্যাকেট দেখে আমি অবাক। প্যাকেটা নিয়ে অফিসে আসার পর খুলে দেখি অনেক বই গুনে দেখি ২৯টি বই। সব ধরনের বই আছে। আর সব থেকে মজার কথা আমার প্রিয় লেখকের বই পাইছি। যেমন কাজী নজরুল ইসলাম, সৈয়দ মুজতবা আলী, রকিব হাসান, ঈশ^রচন্দ্র বিদ্যাসাগর।

আমি মনে করি, যে বইটি পড়া হয়নি, সেটিও নতুন বই। বহু আগে প্রকাশিত বইটিও নতুন, যদি তা পড়া না হয়। সব বই পড়ে শেষ করা ইচ্ছা আছে আমার। বই পেয়ে আমি অনেক খুশি। আমার পড়াশেষে আমি অন্য কাউকে পড়তে দিব। ৩জন মানুষের কথা না বললেই নয় যারা আমাকে বই উপহার পাঠিয়ে অনেক অনুপ্রেরণা দিয়েছেন মুজতবা হাকিম প্লেট দাদা, নাহার মওলা আপু ও সৈয়দা মহুয়া জান্নাত আপু।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য