লিহাজ উদ্দিন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) থেকেঃ প্রতিযোগিতায় সেরা ১৫-তে ৯ম স্থান পেলেন পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার সাকোয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা মোছাঃ নাসরীন সুলতানা (সুমি)।

গত মার্চে শুরু হওয়া এ প্রতিযোগিতায় প্রায় ২৩০০ প্রতিযোগির মধ্যে গত জুলাই মাসে এ প্রতিযোগিতায় সারা দেশ থেকে সেরা ৩৫ জন শিক্ষক নির্বাচন করেন একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) কর্তৃপক্ষ। বিভাগীয় পর্যায়ের নির্বাচিত ৩৫ জন শিক্ষকদের নিয়ে গত ২২ ও ২৩ সেপ্টেম্বর দুই দিনব্যাপী ফাইনাল রাউন্ড অনুষ্ঠিত হয় ঢাকা টিচার্স ট্রেনিং কলেজে (টিটিসি)।

ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ই-লার্নিং স্পেশালিস্ট প্রফেসর ফারুক আহমেদ। সারাদেশ থেকে নির্বাচিত ৩৫ জন শিক্ষক থেকে বিচারকদের সিদ্ধান্তে ‘‘সেরা ১৫জন” প্রতিযোগীর নাম ঘোষণা করা হয়। এতে ৯ম স্থান লাভ করেন সাকোয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা নাসরীন সুলতানা। উল্লে¬খ্য, এ মাল্টিমিডিয়া কন্টেন্ট প্রতিযোগীতায় সারা দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও কলেজের শিক্ষকগণ অংশগ্রহণ করেন।

গত বছরগুলোর ধারাবাহিকায় শিক্ষামন্ত্রী, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মহোদয়ের মাধ্যমে আগামি ডিসেম্বর মাসে বিজয়ী ৩৫জনকে পুরস্কৃত করা হবে বলে জানিয়েছেন ই-লার্নিং স্পেশালিস্ট প্রফেসর ফারুক আহমেদ। উল্লে¬খ্য জয়ী এ শিক্ষক এর আগে দুইবার সপ্তাহের সেরা কন্টেন্ট নির্মাতা হওয়ায় এটুআই কর্তৃক আয়োজিত কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত বিশ্ব শিক্ষক দিবস ও শিক্ষক সম্মেলন/২০১৬ সপ্তাহের সেরা কন্টেন্ট নির্মাতা অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন।

২০১৪ সালে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলায় ‘মাল্টিমিডিয়া কন্টেন্ট উপস্থাপনা’ প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণ করে ১ম স্থান অর্জন করে পুরস্কৃত হন। জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৩ এ বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ শিক্ষিকা হিসেবে নির্বাচিত হন। ২০১৫ সালে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে স্টাডি টুরে ইন্দোনেশিয়া ভ্রমণ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাসরীন সুলতানা বলেন-নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও প্রাথমিক স্তরের শিক্ষকদের মধ্যে সেরা নাম ও স্থান পাওয়ায় আমি আনন্দিত। আমার এ অর্জনের পেছনে বাতায়ন কর্তৃপক্ষ, এটুআই এর সম্মানিত বিচারক মন্ডলী, আইসিটির প্রশিক্ষক মহোদয় শ্রদ্ধেয় মমতাজুর স্যার, শিক্ষা কর্মকর্তা মহোদয়গণ, প্রধান শিক্ষক, সহকর্মী ও পরিবারের সদস্যদের আন্তরিকতা, শুভ কামনা ও দোয়া রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য