দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ গোলাম রাব্বী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন সাদা-সিদে সুন্দর মনের মানুষ। তিনি অত্যান্ত সাদামাঠা জীবন-যাপনে অভ্যস্ত। কোন বিত্ত বৈভবের দিকে তিনি কখনও তাকাননি। এ দেশের মাটি ও মানুষের কথাই তিনি সবর্দা চিন্তা করেন। কিভাবে এ দেশের এবং এ দেশের মানুষের উন্নয়ন হবে, সে চিন্তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় ব্যস্ত থাকেন।

তাকে পেয়ে বাংলাদেশ মনে-প্রাণে খাঁটি একজন দেশপ্রেমিক নেত্রী পেয়েছে। যার প্রশংসা শুধু দেশে নয়, এখন বিদেশের মাটিতেও তিনি প্রশংসিত হচ্ছেন। রোহিঙ্গাসহ সব ধরনের মানবতার পক্ষে কাজ করার জন্য তিনি সর্বমহলে প্রশংসিত। একজন জাতির জনকের কন্যা, একজন রাষ্ট্রপ্রধানের কন্যা হিসেবে তাঁর যে গৌরব-অহংকার থাকার কথা, এক্ষেত্রে তিনি ব্যতিক্রম। কোন প্রকার গৌরব-অহংকার ছাড়াই তিনি মিশে যান এদেশের খেটে খাওয়া মানুষের সাথে।

বিশেষ করে শিশু-কিশোরদের তিনি মন থেকে ভালোবাসেন। তিনি তাঁর শিশু ভাই রাসেল হারিয়ে প্রত্যেক শিশুর মাঝে রাসেলের প্রতিচ্ছবি খুঁজে ফেরেন। তিনি এমন একজন নেত্রী, যিনি তাঁর প্রাপ্ত ভাতাটিও মানবতার সেবায় বিলিয়ে দেন। এমন মানবতাবাদী একজন নেত্রীর কথা বলে শেষ করা যাবে না। আজ তাঁর জন্মদিনে শুধু তাঁর সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করতে হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে দিনাজপুর শিশু একাডেমীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭১তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে জাতীয় শিশু-কিশোর সংগঠন বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলা দিনাজপুর জেলা শাখা আয়োজিত দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলা দিনাজপুর জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহজাহান নভেলের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মাসুদ রেজা খান, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ আহাদ আলী, আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক ডাঃ মানবেন্দ রায়, কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলার মুখপাত্র ও সিনিয়র সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান জুয়েল, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য