প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে মেক্সিকো সীমান্তে ৮টি নমুনা দেয়ালের নির্মাণকাজ শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার।

বিবিসি জানিয়েছে, মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের কাস্টমস অ্যান্ড বর্ডার প্রোটেকশান এজেন্সি নমুনা দেয়ালগুলোর নির্মাণকাজ শুরুর ঘোষণা দিয়েছে।

নির্বাচনী প্রচারে অবৈধ অভিবাসী ঠেকাতে মেক্সিকো সীমান্তে ‘বড় ও সুন্দর দেয়াল’ তোলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। চূড়ান্ত দেয়াল নির্মাণের আগে এই নমুনা দেয়ালগুলো নির্মাণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে কাস্টমস অ্যান্ড বর্ডার কর্তৃপক্ষ।

এর মধ্যে চারটি নমুনা দেয়াল হবে কংক্রিটের, বাকিগুলোতে ব্যবহার করা হবে বিকল্প উপাদান।

নমুনা দেয়ালের কয়েকটি ক্যালিফোর্নিয়ার সান দিয়েগোতে নির্মাণের পরিকল্পনা আছে। ৩০ ফুট পর্যন্ত উঁচু ও ৩০ ফুট দীর্ঘ এ নমুনা দেয়ালগুলোর নির্মাণ ৩০ দিনের মধ্যে শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বিবিসি বলছে, মঙ্গলবার সান দিয়েগো-তিজুয়ানা মেট্রোপলিটন এলাকার তিনটি প্রবেশপথের একটি ওতেই মেসা এলাকায় শেকল দিয়ে বন্ধ করা একটি জায়গার শ্রমিকদের মাটি খুঁড়তে দেখা গেছে। এসময় কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় বাহিনীগুলোর বহু সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

নির্মাণ পরবর্তী তিন মাস কর্মকর্তারা দেয়ালগুলোর কার্যকারিতা পরীক্ষা করে দেখবেন; ছোট যন্ত্রপাতি দিয়ে সেগুলো ফুটো করা যায় কি না তাও খতিয়ে দেখা হবে। চূড়ান্ত দেয়াল নির্মাণের সময় এর সঙ্গে ক্যামেরা এবং সেন্সরও সংযুক্ত হবে।

বিবিসি বলছে, প্রতিটি নমুনা দেয়াল নির্মাণে চার লাখ ৫০ হাজার ডলার পর্যন্ত খরচ হতে পারে; ফেডারেল সরকারের কোষগার থেকে এরইমধ্যে ওই পরিমাণ অর্থ মঞ্জুর করা হয়েছে।

তবে চূড়ান্ত দেয়াল নির্মাণে ট্রাম্প কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে প্রাথমিকভাবে যে দেড় বিলিয়ন ডলার চেয়েছেন সে বিষয়ে এখনো কোনো চুক্তি হয়নি।

যুক্তরাষ্ট্র সরকার এই দেয়াল নির্মাণের পেছনে ব্যয় করা শুরু করলেও নির্বাচনী প্রচারের সময় ট্রাম্প বারবার বলেছিলেন, দেয়াল নির্মাণ খরচ মেক্সিকোর কাছ থেকে আদায় করা হবে।

সীমান্ত সুরক্ষার দায়িত্বে থাকা সংস্থাগুলো বলছে, নমুনাগুলো ভবিষ্যতের দেয়াল কীরকম হবে তার ইঙ্গিত দেবে; যুক্তরাষ্ট্রের বর্ডার পেট্রোল কর্তৃপক্ষের চাহিদার সঙ্গে সমন্বয় রেখে সেগুলো বদলানো হতে পারে।

কাস্টমস অ্যান্ড বর্ডার প্রোটেকশন এজেন্সির ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি কমিশনার রোনাল্ড ভিটিয়েলো জানান, দেয়াল ও বিভিন্ন কাঠামো নির্মাণ এবং প্রযুক্তি ও লোকবল ব্যবহার করে মার্কিন জনগণকে নিরাপত্তা ‍ও সুরক্ষা দেওয়ার নানামাত্রিক কৌশল নিয়ে তারা কাজ করছেন।

“আমরা সীমান্তের নিরাপত্তা রক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, যার মধ্যে আছে সীমানা দেয়াল নির্মাণ,” বলেন তিনি।

বিবিসি বলছে, প্রাথমিকভাবে নমুনা দেয়াল নির্মাণে চারটি কোম্পানিকে বেছে নেওয়া হয়েছে; চূড়ান্ত দেয়ালটি বিভিন্ন নকশার সমন্বয়ে তৈরি হবে।

ট্রাম্প এর আগে বলেছিলেন, চূড়ান্ত দেয়ালের কিছু অংশ স্বচ্ছ হতে পারে, যেন মেক্সিকোর দিক থেকে ছুঁড়ে দেওয়া ব্যাগভর্তি মাদক যুক্তরাষ্ট্রের অংশে থাকা জনগণকে আঘাত করতে না পারে।

দেয়ালের কিছু অংশ সৌরবিদ্যুতের আওতায় থাকবে বলেও ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি।

বিবিসি বলছে, মেক্সিকো সীমান্তে ট্রাম্পের দেয়াল নির্মাণে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছে ক্যালিফোর্নিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল দপ্তর।

গত সপ্তাহে সান দিয়েগোর ফেডারেল ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে এই বিষয়ে একটি মামলাও হয়েছে। মামালার আর্জিতে বলা হয়েছে, দেয়াল নির্মাণের মাধ্যমে পরিবেশ ও অন্যান্য আইনে দেওয়া অধিকারের অপব্যবহার করে সরকার সীমা অতিক্রম করছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য