রাশিয়া বলেছে, ইরান ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মাধ্যমে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ইশতেহার বা আন্তর্জাতিক সমঝোতা লঙ্ঘন করেনি। প্রতিরক্ষার কাজে ব্যবহৃত ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে পশ্চিমা সংবাদ মাধ্যমে যে সব অতিরঞ্জিত খবর প্রকাশিত হয়েছে রাশিয়া বক্তব্য তা নস্যাৎ করে দিয়েছে।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরমাণু অস্ত্র বিস্তার রোধ এবং অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ বিভাগের প্রধান মিখাইল উলিয়ানোভ আরো বলেন, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর বিরুদ্ধে কোনো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়নি।

তিনি আরো বলেন, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ ইশতেহারে পরমাণু ওয়ারহেড বা বোমা বহনে সক্ষম ইরানের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্রের কোনো পরিকল্পনা ইরানের নেই বলেও জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, কেবলমাত্র জাতীয় প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তার প্রয়োজনে ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে ইরান।

ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই ইরানের প্রতি আরো বৈরী-নীতি গ্রহণ করেছে আমেরিকা। নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ ইশতেহার লঙ্ঘন করছে বলে দাবি করছে ওয়াশিংটন। কিন্তু ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র বিষয়ক মুখপাত্র নাবিলা মাসারলি সম্প্রতি বলেছেন, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চূড়ান্ত পরমাণু সমঝোতা বা জিসিপিওএ লঙ্ঘন করেনি।

ইরানের সঙ্গে ছয় জাতিগোষ্ঠীর চূড়ান্ত পরমাণু সমঝোতা গত বছর থেকে কার্যকর হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য