সাদিয়া ইসলাম মৌ একাধারে একজন জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী, মডেল ও অভিনেত্রী। তবে নিজেকে একজন নৃত্যশিল্পী হিসেবে পরিচয় দিতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন তিনি। এই তারকা দীর্ঘ ২২ বছর পর সরকারি কোনো সফরে দেশের বাইরে নৃত্য পরিবেশন করতে যাচ্ছেন।

কোরিয়ায় অনুষ্ঠেয় ‘১২তম মাইগ্রেন্টস অ্যারিরাং মাল্টিকালচারাল ফ্যাস্টিভ্যাল’-এ পারফর্ম করার জন্য একটি দলের সঙ্গে গতকাল রাতেই কোরিয়ার উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছেন সাদিয়া ইসলাম মৌ। আগামি ২৯, ৩০শে সেপ্টেম্বর এবং ১লা অক্টোবর এই ফ্যাস্টিভ্যালে মৌসহ আরো সাতজন নৃত্যশিল্পী পারফর্ম করবেন বলে জানা গেছে।

অন্যরা হচ্ছেন ফারহানা চৌধুরী বেলী, ফারহানা খান, হেনা হোসেইন, সুপ্রিয়া শবনম প্রতিভা, আবদুর রশীদ স্বপন, লতিফুর রহমান ফারুকী ও ওয়াহিদুদ্দিন নাঈম। মৌ মাঝে সংসার, সন্তান নিয়ে ব্যস্ত থাকায় নিজের পেশাগত কাজ থেকে দূরে ছিলেন। বেশ কয়েক বছর হলো তিনি আবারো কাজে ফিরেছেন।

কাজে ফেরার পর বেসরকারি কয়েকটি সফরে নৃত্য পরিবেশন করলেও সরকারি কোনো সফরে ২২ বছর আর অংশ নেয়ার সুযোগ হয়নি তার। সরকারি সফরে পারফর্ম করা প্রসঙ্গে সাদিয়া ইসলাম মৌ বলেন, বিয়ের পর আসলে সংসার, সন্তান নিয়ে এতটাই ব্যস্ত ছিলাম যে সরকারি সফরে অংশ নেয়ার প্রস্তাব এলেও সম্মতি জানাতে পারিনি।

দীর্ঘদিন পর সরকারি সফরে দেশের বাইরে একটি উৎসবে অংশ নিচ্ছি, বিষয়টি অবশ্যই অনেক আনন্দের, উচ্ছ্বাসের। সবচেয়ে ভালোলাগা এই যে, আমরা আটজনের একটি দল একসঙ্গে এই উৎসবে পারফর্ম করছি। দেশের বাইরে সরকারি সফরে একজন নৃত্যশিল্পীর পারফর্ম করা গর্বেরও বিষয় বটে।

প্রসঙ্গত, মৌ সর্বশেষ ২২ বছর আগে সরকারি সফরে তুরস্কে গিয়ে নৃত্য পরিবেশন করেছিলেন।

এদিকে গেল ঈদে মৌকে তার দুই প্রিয় বন্ধু তানিয়া আহমেদ ও তানভীন সুইটির সঙ্গে আরিফ খানের নির্দেশনায় এসএটিভিতে প্রচারিত ঈদ ধারাবাহিক নাটক ‘টেইক এ ব্রেক’-এ অভিনয় করতে দেখা যায়। এ ছাড়া গেল ঈদে তাকে মাজহারুল ইসলাম, কৌশিক শংকর দাশ, নাজমুল ইমন এবং আবু হায়াত মাহমুদের নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য