আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: লালমনিরহাটে মেহেদী হাসান সুমন নামে এক কলেজ শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে কয়েক দিন ধরে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে ‘হাতীবান্ধায় এক পরিমলের সন্ধান’ এমন একটি স্ট্যাটাস ভাইরাল হতে থাকে। এতে বিভিন্ন জন বিভিন্ন ভাবে কমেন্ট করতে থাকে।

অনেকেই ওই স্ট্যাটাসে কমেন্ট করেন ‘কে এই পরিমল?’। অবশেষে হাতীবান্ধা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মশিউর রহমান মামুন তার ফেসবুক পাতায় একটি স্ট্যাটাসে মাধ্যমে দাবি করেন ‘ওই পরিমল খ্যাত শিক্ষকের নাম সুমন’। কলেজ শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে ফেসবুকে স্ট্যাটাস। ফেসবুক পাতা থেকে সংগৃহীত ছবি

মশিউর রহমান মামুন তার স্ট্যাটাসে জানান, ‘হাতীবান্ধায় আলোচিত পরিমল জয়ধর উরফে সুমন মাস্টারের মুখোশ আর উন্মোচিত হচ্ছে না। কারণ এই গুন্ডা মাস্টারের লালসার স্বীকার হওয়া ঐসব কলেজ ছাত্রীরা আত্মসম্মানের ভয়ে এব্যাপারে কেউই মুখ খুলছে না । তবে ভুক্তভোগী কেউ যদি আমাদের কাছে সাহায্য চায়, তার পরিচয় গোপন রেখে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে।’

এ ছাড়া ‘সত্যপ্রকাশ চৌবে ’ নামে অপর একটি ফেসবুক আইডিতে কিছু অস্পস্ট যৌন নিপীড়নের ছবি আপলোড করে স্ট্যাটাস দেয় ‘ঘটনা সত্য, সুমন মাষ্টার হাতীবান্ধার পরিমল’। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সবাই এ ঘটনার তদন্ত ও বিচার দাবী করেছেন স্থানীয় প্রশাসনের কাছে। অস্পস্ট যৌন নিপীড়নের ছবি।ফেসবুক পাতা থেকে সংগৃহীত ছবি

আলোচিত ওই কলেজ শিক্ষক মেহেদী হাসান সুমন স্থানীয় সরকারি আলিমুদ্দিন কলেজের ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক। তবে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি। সুমন দাবি করেন, ‘আমি এখন অসুস্থ্য। সামাজিক ভাবে হেয় করতে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। এটা একটা ষড়যন্ত্রের অংশ। যারা অপ্রচার চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় গ্রহণ করব।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য