আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দর সীমান্তে রিপন মিয়া (৩০) নামে এক বাংলাদেশীকে আটক করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। শুক্রবার রাতে মেখলিগঞ্জ মহকুমার চ্যাংরাবান্ধা রেলওয়ে স্টেশন তেলিপাড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত রিপন মিয়া পাটগ্রাম উপজেলার ঝাকুয়াটারী এলাকার নাজমুল ইসলামের ছেলে।

লালমনিরহাট-১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়ন সূত্রে জানা গেছে, গত ১ আগস্ট ব্যবসার কাজে বুড়িমারী স্থলবন্দর ইমিগ্রেশন দিয়ে ভারতে প্রবেশ করেন রিপন। ভারতের কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ মহকুমার সর্দারপাড়া এলাকার বাসিন্দা তার নানা মনিরুল ইসলামের বাড়িতে ওঠেন তিনি।

সেখান থেকে ব্যবসা পরিচালনা করতেন। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মেখলিগঞ্জ মহকুমার চ্যাংরাবান্ধা রেলওয়ে স্টেশন তেলিপাড়ার যৌনপল্লী থেকে তাকে আটক করে কোচবিহার-৬১ বিএসএফের কাছে সোপর্দ করে স্থানীয়রা।

বুড়িমারী স্থলবন্দর বিজিবি কোম্পানি কমান্ডার ফোরকানুল হক বলেন, ‘এ বিষয়ে বিজিবি-বিএসএফ কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে একটি পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বিএসএফের পক্ষ থেকে জানানো হয়, রিপন মিয়া ওরফে লিপনকে যৌনপল্লী থেকে আটকের পর তাদের কাছে হস্তান্তর করে স্থানীয়রা। কিন্তু ওই সময় রিপন মিয়া তার পাসপোর্ট দেখাতে না পারায় মেখলিগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।’

লালমনিরহাট-১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল গোলাম মোর্শেদ আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, চোরাকারবারিরা নতুন পদ্ধতিতে এখন ভারতে ঢুকছে। আগে তারকাটা কেটে ঢুকত। এখন পাসপোর্টে ভারতে ঢুকে গরু পারাপার করছে। একই পদ্ধতি অনুসরণ করে রিপন মিয়া পাসপোর্টে ভারতে ঢুকে চোরাকারবারি করতেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য