দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বিরলে বজ্রপাতে আরো একজনের মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেছে। মৃতর পরিচয়ে জানা গেছে, ৫নং বিরল ইউপি’র মুকলিশপুর জয়হার গ্রামের হেলালের পুত্র সাকিবুল হাসান সোহাগ হৃদয় (১২) বাড়ীর পাশে খালে মাছ ধরার সময় বজ্রপাতে আহত হয়। প্রতিবেশিরা তাকে বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করে।

এর আগে শনিবার দুপুর সেয়া ২ টায় বিরলে একই দিনে একই স্থানে বজ্রপাতে নিহত হয়েছে ৪জন। একই ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ৭ জন। উপজেলার রাজারামপুর গ্রামের একটি ধান ক্ষেতে অনাকাঙ্খিত এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, প্রতিদিনের ন্যায় ধান ক্ষেতে কাজ করার সময় আকাশ মেঘাচ্ছন্ন হয় এবং বজ্রপাতের আলো ও প্রচন্ড শব্দ হতে শুরু করে। এসময় প্রায় ১১জন কৃষক-কৃষাণী সেচ ঘরে আশ্রয় নেওয়ার সময় হঠাৎ করে বজ্রপাত ঘটে। বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই ৩ জনের মৃত্যু হয়। সেখানে আহত হয় আরো ৭ জন। আহতদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

নিহতদের পরিচয়ে জানা গেছে, উপজেলার ১২ নং রাজারামপুর ইউপি’র পূবগ্রামের উপেন্দ্র নাথ রায়ের ছেলে নব কিশোর রায় (১৪), প্রদিব চন্দ্র রায়ের স্ত্রী বনিতা রানী রায় (৩০), দিনাজপুর সদর উপজেলার মহাদেবপুর গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে মেশের আলী (৩২) ও মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে শুকুদ্দিন (৩৩)। আহতদের মধ্যে মুক্তি রাণী (৩২) নামের আরো একজনের অবস্থা আশংকাজনক।

ঘটনায় এলাকায় চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। আহতরা হলেন-সুকুমার (৩৩), মল্লিক (২৩), রফিকুল ইসলাম (৪৫), মুক্তি (৪৫), নলিতা (৩৫) শাহানাজ (৩৩) ও জিয়াউর রহমান (৩০)। এরা সবাই দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য