মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাঁও থেকেঃ এবারের বন্যায় রেলপথ থেকে মাটি ও পাথর সরে যাওয়ায় ও একাধিক স্থানে ব্রিজের ওপর রেললাইন বেঁকে যাওয়ায় পার্বতীপুর-পঞ্চগড় রেলপথে (১৩২ কিলোমিটার) ৩৮ দিন বন্ধ থাকার পর সোমবার পুনরায় ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

সকাল সোয়া ৮টায় কাঞ্চন এক্সপ্রেস ট্রেন পার্বতীপুর রেল স্টেশন থেকে পঞ্চগড় রেল স্টেশন অভিমুখে ছেড়ে যায়। এর আগে পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও রেল স্টেশনে আটকেপড়া কাঞ্চন এক্সপ্রেস ট্রেন ও ৮ ডাউন মেইল ট্রেন পার্বতীপুর নিয়ে আসা হয়।

রেলওয়ের স্থানীয় সূত্র জানায়, ভয়াবহ বন্যায় গত ১১ আগস্ট পার্বতীপুর-পঞ্চগড় রেল পথের নয়নিবুরুজ ব্রিজের রেল লাইন বেঁকে যায়। ব্রিজের দুই পাশের মাটি ও পাথর সরে যায় পানির স্রোতে। একইভাবে ঠাকুরগাঁও’র পাশের কিসমত রেল স্টেশন এলাকা ও দিনাজপুর-সেতাবগঞ্জ রেলপথের বাজনাহার থেকে মাটি পাথর সরে গেলে পুরো রেলপথটি ট্রেন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে।

তাছাড়া পার্বতীপুর-দিনাজপুরের মাঝামাঝি চিরিরবন্দরসহ একাধিক জায়গায় মাটি ও পাথর সরে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় রেলপথের। দীর্ঘ ৩৮ দিন বন্ধ থাকার পরে রেলপথের সংস্কার ও ব্রিজ মেরামত শেষে উলে¬খিত রেলপথে সোমবার ট্রেন চলাচল শুরু করে রেল কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, ১৬ দিন বন্ধ থাকার পরে গত ২৮ আগস্ট পার্বতীপুর-দিনাজপুর রেলপথের পুনরায় যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। পার্বতীপুর রেল স্টেশন মাস্টার শোভন রায় জানান, পার্বতীপুর-পঞ্চগড় রেলপথ চালু হওয়ার মধ্য দিয়ে দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়- এ তিন জেলার ট্রেন যাত্রীদের ভোগান্তি দূর হলো। তিনি আরো বলেন, “ঈদে ঘরে ফেরা যাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘব করতে রেল কর্তৃপক্ষ অগ্রাধিকারভিত্তিতে ২৮ আগস্ট দিনাজপুরের সঙ্গে সারা দেশের ট্রেন যোগাযোগ পুনর্বহাল করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য