রোমানিয়ার পশ্চিমাঞ্চলে শক্তিশালী এক ঝড়ের তাণ্ডবে আটজন নিহত ও অন্তত ৬৭ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

রোববার ঘন্টায় সর্বোচ্চ ১০০ কিলোমিটার বাতাসের বেগ নিয়ে বয়ে যাওয়া ঝড়টিতে দেশটির তিমিসুয়ারা শহর ও এর আশপাশেই সবচেয়ে বেশি মানুষ হতাহত হয়েছেন, জানিয়েছে বিবিসি, বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

একই ঝড়ে রোমানিয়ার প্রতিবেশী দেশ সার্বিয়া ও ক্রোয়েশিয়ার কয়েকটি এলাকাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ঝড়ের কারণে রোমেনিয়ার পশ্চিমাঞ্চলের তিমিসুয়ারাসহ কয়েকটি এলাকার বিদ্যুৎ ও পানি সরবরাহ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তিমিসুয়ারায় গাছ উপড়ে পড়েছে ও বেশ কয়েকটি বাড়ির ছাদ উড়ে গেছে।

শহরটির মেয়র নিকোলাই রোবু টেলিভিশন চ্যানেল ডিজি টোয়েন্টিফোরকে বলেন, “এই ঝড়ের বিষয়ে আমাদের সতর্ক করা হয়নি। আবহাওয়া প্রতিবেদনে শুধু বৃষ্টির কথা বলা হয়েছিল।”

দেশটির জরুরি বিভাগ মানুষকে ঘরে আশ্রয় নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে গাছপালা ও বৈদ্যুতিক লাইন থেকে দূরে থাকার অনুরোধ জানিয়েছে।

ঝড়ে উপড়ে পড়া গাছের কারণে দেশটির কয়েকটি অংশে সড়ক ও রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে রয়েছে। বেশ কয়েকটি হাসপাতাল, স্কুল ও অ্যাপার্টমেন্ট ভবনের ছাদ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পশ্চিমাঞ্চলের শহর ও গ্রামগুলো বিদ্যুৎহীন হয়ে রয়েছে।

হতাহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন বাইরে ঘুরে বেড়ানোর সময় হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়ে যান বলে জানিয়েছে জরুরি বিভাগ।

সার্বিয়ার রাজধানী বেলগ্রেডের কাছে দানিয়ুব নদীতে নিজের নৌকায় থাকা এক ব্যক্তি নিখোঁজ হয়েছেন। এছাড়া উপড়ে পড়া গাছের আঘাতে পাঁচ বছর বয়সী একটি শিশুসহ ছয়জন আহত হয়েছেন।

ঝড়টি এখন উত্তর দিকে ইউক্রেইনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য