দিনাজপুর সংবাদাতাঃ অনুমোদন বিহীন যানবাহন গুলো ধারণ ক্ষমতাকে অতিক্রম করে অতিরিক্ত মালামাল নিয়ে ঝুকিপূর্ণ অবস্থায় দিনাজপুর শহরের সকল সড়ক দিয়ে চলাচল করছে। এরই দুর্দশার একটি চিত্র ১৭ সেপ্টেম্বর রবিবার দুপুরে দিনাজপুর কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজ এর শিক্ষার্থীরা অল্পের জন্য বেচে গেল।

৮০ কেজি ওজনের ১৫০টি ধানের বস্তা মোট ১২টন ওজনের ঝুকিপূর্ণ একটি ট্রাক্টরের টলি দুপুরে স্কুলের টিফিনহওয়ার ঠিক ৩ মিনিট পূর্বে স্কুল গেটের সামনে উল্টে যায়।

তাৎক্ষনিক দিনাজপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নেজারত ডেপুটি কালেক্টরেট’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ উজ্জল হোসেন ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে উক্ত টলির মালিককে অবৈধ বাহনে ড্রাইভিং লাইসেন্স বিহীন চালক ব্যবহার করায় ১১ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করেন।

দিনাজপুর শহরে অনুমোদন বিহীন যানবাহণ ট্রাক্টর, নসিমনসহ বিভিন্ন যানবাহণ গুলো শহরে চলাচল নিষেধ থাকলেও কিছু অসাধু ব্যবসায়ি তাদের জনবল ব্যবহার করে এই নিষেধাজ্ঞাটিকে তওয়াকা না করে তাদের ব্যবসা বাস্তবায়িত করছে। এর ফলে শহরে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনাসহ শহর এলাকায় যানজোট সৃষ্টি হচ্ছে।

শুধু তাই নয়, এই অনুমোদন বিহীন ইঞ্জিন চালিত বাহন গুলোতে যে পরিমাণ মালামাল বহন করার কথা থাকলেও, এই বাহন গুলোর মলিক বেশি লাভবান হওয়ার লক্ষ্যে অতিরিক্ত তিন গুণ বেশি মালামাল নিয়ে ঝুকিপূর্ণ অবস্থায় শহরে চলাচল করছে। আর এই কাজ গুলোকে সাহায্যে করছে দিনাজপুর পৌরসভা।

দিনাজপুর পৌরসভা কর্তৃক অনুমোদিত রশিদ ব্যবহার করে শহরের ফুলবাড়ী বাসস্ট্যান্ড, লিলির মোড়, পূর্ণভবা ব্রিজ, জেলা প্রশাসক বাসভবন রোড, বাহাদুর বাজার ট্রাফিক আইল্যান্ডসহ বিভিন্ন পয়েন্টে টোল আদায় করা হচ্ছে। কিন্তু পৌরসভা কর্তৃক ট্রাক টার্মিনাল এলাকায় টোল আদায়ের শর্তে ইজারাদার মোঃ সেলিমকে ইজারা প্রদান করা হয়।

টোল আদায়ের রশিদে ইজারাদার বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ মোজাম্মেল হক সভাপতি দিনাজপুর জেলা ট্রাক ও ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়ন এর নাম ব্যবহার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পৌরসভার প্যানেল মেয়র রেহায়তুল ইসলাম খোকা’র সাথে কথা বল্লে তিনি বলেন পৌরসভা কর্তৃক ট্রাক টার্মিনাল এলাকায় টোল আদায়ের শর্তে ইজারাদারকে ইজারা দেয়া হয়েছে। ট্রাক টার্মিনাল এলাকা ব্যতিত অন্য সকল স্থান গুলোতে টোল আদায়কারী অবৈধভাবে টোল আদায় করছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য