কেনিয়ার সীমান্তবর্তী সোমালিয়ার বালাড হাওয়ো শহরের সামরিক ঘাঁটিতে আত্মঘাতী গাড়ি বোমা হামলা চালানোর পর আল শাবাব জঙ্গিরা ঘাঁটিটিতে হামলা চালিয়েছে।

সোমবার ভোরের এ হামলায় ২৪ জন সোমালি সৈন্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে আল শাবাব, কিন্তু সোমালিয়ার সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তারা অন্তত ১০ সৈন্য নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছেন।

সামরিক ঘাঁটিতে হামলার পর সোমালি সৈন্যদের সঙ্গে জঙ্গিদের তীব্র লড়াই শুরু হয় বলে আল শাবাবের মুখপাত্র আব্দিয়াসিস আবু মুসাব বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন।

“প্রথমে এক মুজাহিদ সামরিক ঘাঁটির ভিতরে ঢুকে গাড়ি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়, তারপর আমরা হামলা চালাই,” বলেছেন তিনি।

অপরদিকে আক্রান্ত শহরটি থেকে সোমালিয়ার সেনাবাহিনীর মেজর মোহামেদ আব্দুল্লাহি রয়টার্সকে বলেছেন, “ভোর একটি আত্মঘাতী গাড়ি বোমার শব্দে আমরা জেগে উঠি, তারপর তীব্র লড়াই শুরু হয়। আমাদের অন্তত ১০ সৈন্য প্রাণ হারিয়েছেন। আমরা আল শাবাবদের শহর থেকে তাড়িয়ে দিয়েছি। সাত জঙ্গিকে হত্যা করেছি আমরা।”

তবে উভয়পক্ষেই নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে মনে করেন তিনি। শহরটির বাসিন্দারা দুপক্ষের মধ্যে লড়াই অব্যাহত থাকার কথা জানিয়েছেন।

সুলেয়মান নুর নামে শহরটির এক দোকানদার বলেন, “প্রথমে আমরা সামরিক ঘাঁটির ভিতরে প্রচণ্ড একটি বিস্ফোরণের শব্দ শুনি, এর পরপরই তীব্র গোলাগুলির শব্দ।

“সামরিক ঘাঁটি, পুলিশ স্টেশন ও শহরের অধিকাংশ এলাকা দখল করে নিয়েছে আল শাবাব, তবে শহরের শেষ প্রান্ত থেকে এখনও গোলাগুলির শব্দ আসছে। আল শাবাবকে দুটি সামরিক যান দখল করে নিতে দেখেছি আমি।”

সোমালিয়ায় কট্টর শরিয়া আইন চালু করার লক্ষ্যে বিদ্রোহ চালিয়ে আসছে আল কায়েদার সঙ্গে সম্পর্কিত জঙ্গিগোষ্ঠী আল শাবাব। এই লক্ষ্যে দেশটির পশ্চিমা সমর্থিত সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরাতে ও আফ্রিকান ইউনিয়নের শন্তিরক্ষীদের দেশ থেকে তাড়িয়ে দিতে তারা প্রায়ই রাজধানী মোগাদিশুসহ দেশটির বিভিন্ন স্থানে প্রাণঘাতী হামলা চালিয়ে আসছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য