বিশ্বে ২০১৪ সাল থেকে সাড়ে ২২ হাজারের বেশি অভিবাসী মারা গেছেন বা নিখোঁজ হয়েছে। এর মধ্যে অর্ধেকেরই বেশি ঘটনা ঘটেছে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেয়ার চেষ্টা করতে যেয়ে। আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা বা আইওএমের সমীক্ষায় এ মর্মান্তিক তথ্য ওঠে এসেছে।

ইউরোপের পূর্বাঞ্চলীয় সীমান্তে কড়াকড়ি আরোপকে কেন্দ্র করে অভিবাসীদের সামনের বিপজ্জনক পথ বেছে নেয়া ছাড়া আর কোনো বিকল্প ছিল না। বিশ্বব্যাপী অভিবাসীদের মৃত্যুসংখ্যা কমলেও এ কারণে ভূমধ্যসাগরে অসহায় মানুষগুলোর মৃত্যু সংখ্যা বাড়ার প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে। আজ (সোমবার) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ সব তথ্য দিয়েছে এ বিশ্বসংস্থা।

এতে আরো বলা হয়েছে, ইউরোপ-তুরস্ক চুক্তির প্রেক্ষাপটে পূর্বাঞ্চলীয় পথে অভিবাসীদের যাওয়ার প্রবণতা ২০১৬ সালে কমেছে। কিন্তু মৃত্যু হার বেড়েছে। ২০১৬ সালে প্রতি একশ’ অভিবাসীর মধ্যে মৃত্যুহার ছিল ১.২ কিন্তু চলতি বছরে বেড়ে ২.১ শতাংশে ঠেকেছে। এভাবে বেঘোরে প্রাণ হারানোর আংশিক কারণ হলো, অভিবাসীরা অধিক হরে মধ্য ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের পথ বেছে নেয়ায় মৃত্যুহার এভাবে বেড়ে গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য