গত কয়েক বছরে ধারাবাহিকভাবে বেশ কিছু শ্রোতাপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠ প্রতিযোগিতা থেকে আসা সংগীতশিল্পী বাঁধন সরকার পূজা। এই সময়ে তার গাওয়া দ্বৈত ও একক কণ্ঠের গানগুলো প্রশংসিতও হয়েছে শ্রোতামহলে। অ্যালবামের পাশাপাশি এই সময়ে বেশ কিছু সিনেমার গানেও কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি স্টেজ শো নিয়েও ব্যস্ত থেকেছেন।

এদিকে গেল ঈদে পূজার বেশ কয়েকটি গান প্রকাশ হয়েছে। বর্তমানে নতুন গান নিয়েও ব্যস্ত তিনি। সব মিলিয়ে দিনকাল কেমন কাটছে? পূজা বলেন, বেশ ভালো। গানের মধ্য দিয়েই সময় চলে যাচ্ছে। এভাবেই থাকতে চাই সব সময়। বর্তমান ব্যস্ততা কী নিয়ে? পূজা উত্তরে বলেন, ব্যস্ততাতো গান নিয়েই। কিছু নতুন গানের পরিকল্পনা করছি। তাছাড়া তাহসান ভাইয়ার সঙ্গে একটি দ্বৈত গান করেছি মাস দুয়েক আগে। সেটার ভিডিও ধারণও শেষ হয়েছে।

তবে প্রকাশের তারিখ এখনও নির্ধারিত হয়নি। তবে আমি গানটি নিয়ে অনেক অশাবাদী। আর নতুন গানের কী খবর? পূজা বলেন, তানজীব সারোয়ারের সঙ্গে একটি দ্বৈত গান করেছি। তাছাড়া জুয়েল মোর্শেদ ভাইয়ের সুরেও একটি গানে কণ্ঠ দেয়ার কথা রয়েছে। এছাড়াও নতুন একটি চমক রয়েছে। বিষয়টি এখনই বলতে চাই না। আরও কিছুদিন পর সবাইকে জানাবো। ইমরানের সঙ্গে আপনার বেশ কিছু দ্বৈত গান জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

অনেকেই বলেন সংগীতে এটাই সর্বশেষ সফল জুটি। আপনি নিজে জুটি প্রথায় কতটা বিশ্বাসী? পূজা বলেন, আসলে জুটি ইচ্ছে করে করা হয় না। এটা হয়ে যায়। শ্রোতারা যখন প্রথম কাজটি পছন্দ করেন, তখন অডিও কোম্পানি কিংবা শ্রোতারাও প্রত্যাশা করে তাদের পরবর্তী কাজের। ইমরানের সঙ্গে যতগুলো গানই করেছি সেগুলো শ্রোতারা গ্রহণ করেছেন। যেহেতু ইমরান আমার ভালো বন্ধু তাই ওর সঙ্গে কাজ করতে আমি খুব স্বাচ্ছান্দ্যবোধ করি। ইমরানের পাশাপাশি আরফিন রুমি, বেলাল খান ও কাজী শুভ ভাইয়ের সঙ্গে করা গানগুলোও শ্রোতারা পছন্দ করেছেন।

আবার আমার গাওয়া একক বেশ কিছু গানের অনুরোধও সব সময় পাই স্টেজ কিংবা টিভি লাইভে। আমি মূলত ভালো গানে বিশ্বাসী। একক কিংবা দ্বৈত সেটা বিষয় নয়। ভালো মানের গান সব সময় আমাকে টানে। প্লেব্যাকের কী খবর? পূজা বলেন, সর্বশেষ হাসিবুর রেজা কল্লোল পরিচালিত ‘সত্তা’ ছবিতে গেয়েছিলাম। এখনও কয়েকটি প্রস্তাব রয়েছে প্লেব্যাকের। ব্যাটে বলে মিলে গেলে হয়তো করে ফেলবো। বর্তমানে অডিও ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা কেমন মনে হচ্ছে? পূজা বলেন, এখনতো ভালোই মনে হচ্ছে। কারণ কোম্পানিগুলো বিভিন্ন শিল্পীদের গান ও ভিডিও প্রকাশ করছে। আবার শিল্পীরাও নিজ উদ্যোগে গান করতে পারছে। ভালোর সঙ্গে খারাপ মানের গান যে হচ্ছে না তা বলবো না।

তবে আমি মনে করি শ্রোতারাই একটি গানের মূল শক্তি। তাই শ্রোতারাই শেষ পর্যন্ত ভালো গানটিকেই গ্রহণ করে। আর নিম্নমানের গান বর্জন করে। গান নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী? পূজা বলেন, পরিকল্পনা করে কিছু করতে পারি না। তবে চেষ্টা করি ভালো গান করার। আমি যে কোনো কাজের পেছনে শতভাগ দেয়ার চেষ্টা করি। যতক্ষণ কোনো গান রেকর্ডিংয়ের সময় নিজের মনের মতো না হয়, আমি গাইতেই থাকি। আসলে একটি গানতো একজন শিল্পীর পরিচয়ও। তাই সেদিকটায় খেয়াল রাখি সব সময়। কয়েক মাস আগেইতো বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন।

সংসার কেমন চলছে? পূজা বলেন, সবার দোয়ায় বেশ ভালো চলছে। আমার স্বামী অন্তু আমাকে খুব ভালোভাবে বোঝে। আমার সব কাজে সে উৎসাহ দেয়। আমিও তার কাজে সেরকমটাই করি। আসলে বোঝাপড়া ভালো হলে কোনো সমস্যা হয় না। সংসারে এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। সেটা আমাদের আছে। দোয়া করবেন যেন সারা জীবন এভাবেই থাকতে পারি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য