সংস্কারি পহেলাজ অতীত। নয়া সেন্সর প্রধান প্রসূন জোশীর কাছ থেকে বিনা কাটেই মিলেছে মুক্তির ছাড়পত্র। কিন্তু এরপরও বাদশাহোর মুক্তি নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। আর এই প্রশ্নের মূলে রয়েছে ধর্ষক বাবা রাম রহিম। কেমন করে? আসলে সোমবার ধর্ষণের অপরাধে ডেরা সাচা প্রধানের ২০ বছরের সশ্রম কারাদ-ের সাজা ঘোষণা করা হয়।

ঘটনার পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে পাঁচকুলা এলাকা। পরিস্থিতি সামলাতে এখনও মোতায়েন রয়েছে সেনা। অশান্তির আঁচ হরিয়ানা থেকে ছড়িয়েছে পাঞ্জাব, দিল্লির মতো উত্তর ভারতের রাজ্যগুলিতেও। এ অবস্থায় ১ সেপ্টেম্বর বাদশাহো মুক্তি পেলে আদেও কি দর্শকরা প্রেক্ষাগৃহে আসবেন?

এই প্রশ্নই নাকি চিন্তায় ফেলেছে ছবির প্রযোজক ও ডিস্ট্রিবিউটরদের। বলিউডের জোর গুঞ্জন ছিল, নিজের ছবির মুক্তির তারিখ পিছিয়ে দিতে চলেছেন প্রযোজক ভূষণ কুমার। তবে এই যাবতীয় জল্পনায় জল ঢেলে দিলেন খোদ প্রযোজক ভূষণ কুমারই।

বাদশাহোর মুক্তির তারিখ পিছোনো হবে না বলেই জানিয়ে দিয়েছেন ছবির প্রযোজক। ছবি মুক্তি পেতে পেতে পরিস্থিতি অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে যাবে। আর এতে ছবির ব্যবসায় কোনও ক্ষতি হবে না বলেই বিশ্বাস ভূষণ কুমারের।

প্রসঙ্গত, এর আগেও ছবির গান নিয়ে বিপাকে পড়েছে অজয় দেবগণ, ইমরান হাশমির বাদশাহো। দিওয়ার ছবির সুপারহিট গান কহ দু তুমহেকে নতুনভাবে পেশ করা হয়েছিল ছবিতে। তা নিয়েই আপত্তি জানায় ত্রিমূর্তি ফিল্মস। তাঁদের দাবি ছিল, ৭৫-এর ছবির এই গানটির কপিরাইট শুধুমাত্র তাদের কাছেই রয়েছে।

বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। শেষে বম্বে হাই কোর্টের নির্দেশে ছবি থেকে গান সরিয়ে দিতে বাধ্য হন ভূষণ কুমার। তবে একটি গানের জন্য ছবির জনপ্রিয়তায় কোনও প্রভাব পড়বে না বলেই আশা তাঁর।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য