প্রধানমন্ত্রিত্ব হারানোর পর প্রথমবারের মতো বিদেশে যাচ্ছেন নওয়াজ শরিফ। গলার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে লন্ডনে চিকিৎসারত স্ত্রী কুলসুম নওয়াজকে দেখতে যাওয়ার জন্য গতকাল বুধবার পাকিস্তান থেকে রওনা করেছেন তিনি। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ডন খবরটি জানিয়েছে।

নওয়াজ লন্ডন যাচ্ছেন বলে গত মঙ্গলবারই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী সিনেটর পারভেজ রশিদ। গত মঙ্গলবার ডনকে তিনি বলেন, ‘মিয়া সাহেব (নওয়াজ) গতকাল বুধবার পাকিস্তান ছেড়ে লন্ডনের উদ্দেশে রওনা করবেন। গলার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসারত বেগম কুলসুমকে দেখতে যাচ্ছেন তিনি।’

ডন জানায়, বুধবার নওয়াজকে বিদায় জানাতে লাহোরের আল্লামা ইকবাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন তার ছোট ভাই ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। ইমিরেটস এয়ালাইন্সের একটি ফ্লাইটে রওনা করেন সাবেক পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী। লন্ডন যাওয়ার পথে বিমানটির দুবাইয়ে কয়েক ঘণ্টা যাত্রাবিরতির কথা রয়েছে। পারভেজ রশিদ জানান, অন্তত ১০ দিন লন্ডনে থাকবেন নওয়াজ।

সম্প্রতি লন্ডনে শারীরিক পরীক্ষার পর কুলসুমের গলায় ক্যান্সার ধরা পড়ে। গত ২২ আগস্ট লন্ডন থেকে পিএমএল-এন এর এক নেতা জানান,কুলসুমের ছোট ছেলে হাসান নওয়াজ তার মায়ের অসুস্থতার খবর জানিয়েছেন। কুলসুমের গলার ক্যান্সার প্রাথমিক অবস্থায় আছে এবং এর থেকে আরোগ্য লাভ সম্ভব। পানামা পেপারস কেলেঙ্কারি মামলায় অভিযুক্ত হয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে প্রধানমন্ত্রী পদে অযোগ্য ঘোষিত হওয়ার পর পদত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ।

এরপর তার আসনটি শূন্য হয়। আগামি ১৭ সেপ্টেম্বর শূন্য আসনে নির্বাচনের কথা রয়েছে। ওই আসনে পিএমএলএন-এর হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কুলসুম। এর আগে ক্ষমতাসীন পিএমএলএনের প্রার্থী হিসেবে নওয়াজের ভাই পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের এ আসনে নির্বাচন করার কথা ছিল। পরে শাহবাজ নিজেই জানান,বেগম কুলসুম নওয়াজই নির্বাচন করবেন।

গলায় ক্যান্সার ধরা পড়লেও পিএমএলএন-এর নেতারা এরইমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন, কুলসুমই দলের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। দুই ছেলে হাসান ও হুসেন এবং মেয়ে আসমা কুলসুমের সঙ্গেই লন্ডনে আছেন। আরেক মেয়ে মরিয়ম মায়ের হয়ে নির্বাচনি প্রচারণা চালাতে পাকিস্তানেই থেকে গেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য