ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার প্রতিবাদে এবং প্রধান বিচারপতির অপসারনের দাবী ও নীলফামারীর জলঢাকায় আউট সোর্সিং এর মাধ্যমে উপজেলার ৫৭টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী নিয়োগে উপজেলা প্রশাসনের বিরুদ্ধে অনিয়ম,দূর্নীতি ও অর্থ বাণিজ্যের প্রতিবাদে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে জলঢাকা নাগরিক কমিটির আয়োজনে পৌর শহরের জিরো পয়েন্ট মোড়ে এই মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মশিউর রহমান বাবুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনছার আলী মিন্টু।

বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি ও বালাগ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম লিপন, উপজেলা যুবলীগ নেতা এনামূল হক, উপজেলা তাঁতীলীগের সাধারন সম্পাদক হাসান আলী প্রমূখ মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করায় প্রধান বিচারপতি যে পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন তা অতিসত্ত্বর বাতিল কে প্রধান বিচার পতি সিনহার অপসারনের দাবী জানান।

মানবন্ধনে নৈশ্য প্রহরী পদে নিয়োগে জলঢাকায় যে অর্থ লেনদেন হয়েছে তা অবিলম্বে ফেরত দিয়ে এই অস্বচ্ছ নিয়োগ বাতিলের দাবী জানানো হয়।

অনিয়মের বিষয়ে অভিযোগ অস্বীকার করে নিয়োগ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহঃ রাশেদুল হক প্রধান বলেন, আমার কাছে তিনি অনৈতিক কিছু দাবী করেছিলেন আমি রাজি না হওয়ায় তারা আমার বিরুদ্ধে এই মিথ্যা অপপ্রচার চালাছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য