উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ভয়ে আজ (মঙ্গলবার) জাপানে সতর্কতামূলক বার্তা দেয়ার পর দেশটিতে হুলস্থুল কাণ্ড শুরু হয়। ‘অশুভ’ লিখিত মেসেজ পেয়ে লাখ লাখ মানুষ ঘুম থেকে জেগে ওঠে। বার্তায় জনগণকে নিরাপদ অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানানো হয়।

উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রটি যাওয়ার কথা ছিল জাপানের উত্তরাংশ দিয়ে। ফলে ওই এলাকায় সতর্কতার জন্য সাইরেন বাজানো হয়। ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপানের আকাশ দিয়ে গর্জন করতে করতে দুই মিনিট পর প্রশান্ত মহাসাগরে গিয়ে পড়ে। তার আগে সরকারের পক্ষ থেকে জনগণকে মোবাইলে লিখিত মেসেজ দেয়া হয়- “ক্ষেপণাস্ত্র পার হচ্ছে”।

আরেকটি মেসেজে বলা হয়- “কিছুক্ষণ আগে এ এলাকা দিয়ে দৃশ্যত একটি ক্ষেপণাস্ত্র পার হয়েছে। আপনি যদি কোনো সন্দেহজনক কিছু দেখেন তাহলে তার কাছে না গিয়ে বরং দ্রুত পুলিশ অথবা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিন। দয়া করে নিরাপদ ভবনে অথবা আন্ডারগ্রাউন্ডে অবস্থান নিন।”

উত্তর কোরিয়া আজ একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়েছে যা জাপানের আকাশসীমা দিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে গিয়ে পড়ে। দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রটি সর্বোচ্চ ৫৫০ কিলোমিটার উচ্চতায় উঠেছিল এবং অন্তত ২,৭০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে পড়ে। সাম্প্রতিক সময়ে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকা, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার ব্যাপক উত্তেজনা চলছে তবে আজকের এ ঘটনার পর জাপানের জনগণ সবচেয়ে বেশি উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য