দিনাজপুর সংবাদাতাঃ মানসম্মত শিক্ষা অর্জনের বড় অন্তরায় গাইড বই এবং কোচিং সেন্টারের উপর নির্ভরশীলতা। এক শ্রেণীর অর্থলোভী মানুষ বাজারে গাইড বই বিক্রি করে অর্থ কামানোর ব্যবসায় লিপ্ত হয়েছে। কোচিং ব্যবস্থার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

কমলমতি শিক্ষার্থীদের বই পড়া থেকে বিরত রেখে বিদ্যার্জনে অন্তরায় সৃষ্টি করছে, মেধার বিকাশ ও জ্ঞান চর্চা থেকে বিরত রাখতে অপচেষ্টা চালাচ্ছে। চর্চার মাধ্যমে প্রতিভা বিকশিত হয়। নতুন কিছু জানার মধ্যে আনন্দ আছে, না বুঝে মুখস্ত করার মধ্যে তা নেই। আছে একঘেয়েমি। মুখস্থ বিদ্যার ফলে না প্রকৃত জ্ঞান লাভ হচ্ছে, না হচ্ছে মেধার চর্চা।

না বুঝে মুখস্থ বিদ্যার এই হলো বিপদ। মেধার চর্চা না হওয়ার ফলে যথার্থ শিক্ষিত শিক্ষার্থী পাওয়া থেকে জাতি বঞ্চিত হয়ে আসছে প্রতি বছর। শিক্ষায় জাতি যে অর্থ বিনিয়োগ করছে, তার সুফল পাচ্ছে না।

২৮ আগষ্ট সোমবার দুপুর ১২টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে মান সম্মত শিক্ষা অর্জন, মানবিক গুন সম্পন্ন, সৃজনশীল ও মেধাবী জাতি তৈরীর লক্ষ্যে গাইড বইয়ের ব্যবহার বন্ধে অবহিতকরণ সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম।

বিশেষ অতিথি ছিলেন দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আহমদ হোসেন। মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন-দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ মতিউর রহমান, জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ রফিকুল ইসলাম, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এস.এম তৌফিকুজ্জামান, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ সফিকুল ইসলাম, দিনাজপুর সিটি কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোঃ মাজেদুর রহমান প্রধান, আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের প্রভাষক মোঃ রেদওয়ান টিটু, কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ রাহিনুর ইসলাম, পুলিশ লাইন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আনোয়ারুল হক, মহারাজা গিরিজানাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদ আলম, একাডেমী স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক কামরুন নাহার, জিলা স্কুলের সহকারী শিক্ষক মোঃ সাইফুদ্দীন, ইকবাল হাই স্কুলের অভিভাবক সদস্য আহসানুজ্জামান চঞ্চল, বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি মোঃ মফিদুল আলম সাদেক স্বপন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজউদ্দীন প্রমূখ।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিভিন্ন লাইব্রেরীর মালিকগণ, পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, অভিভাবক সদস্য, শিক্ষার্থীদের অভিভাবক, সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য