মৌসুমী ঝড় হার্ভের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। হাউস্টনে চলমান বন্যার কবলে থাকা ২০০০ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতিকে নজিরবিহীন বলে উল্লেখ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া বিভাগ (এনডব্লিউএস)। শুরুতে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া বিভাগ থেকে হাউস্টনে ৫ জনের প্রাণহানির খবর জানানো হলেও এখন পর্যন্ত ২ জনের মৃত্যুর ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেছে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

হাউস্টনে বন্যা

ক্রান্তিয় ঝড়ে পরিণত হওয়া হারিকেন হার্ভের প্রভাবে হাউস্টনে এরইমধ্যে ত্রিশ ইঞ্চিরও বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। বৃষ্টির কারণে হাউস্টনে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। বন্যার পানিতে শহরের রাজপথগুলো যেন নদীতে পরিণত হয়েছে। অন্তত ২০টি হেলিকপ্টার ব্যবহার করে উপদ্রুত এলাকার বহু বাড়ির ছাদ থেকে ২০০০ মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে।

একটি কনভেনশন সেন্টারসহ অনেকগুলো জায়গায় আশ্রয় কেন্দ্রও খোলা হয়েছে। আশঙ্কাজনক পরিস্থিতিতে না থাকলে জরুরি সেবা বিভাগকে না ডাকার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন হাউস্টনের মেয়র সিলভেস্টার টার্নার। জনগণকে সাবধানে চলাফেরা করার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনারা রাস্তায় নেমে আসবেন না। ভাববেন না ঝড় শেষ হয়ে গেছে।’

জাতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর বা এনডব্লিউএস পুরো পরিস্থিতিকে বলছে ‘অভূতপূর্ব’। তারা বলছে, ওই এলাকায় ‘আকস্মিক বন্যাজনিত জরুরি অবস্থা’ তৈরি হয়েছে। কাছাকাছি এলাকায় ভ্রমণ করাও অসম্ভব ব্যাপার হয়ে পড়েছে।

এদিকে বন্যার পানিতে গাড়িতে মরদেহ থাকতে পারে বলে ধারণা করা হলেও কাউন্টি শেরিফের কার্যালয় এ ব্যাপারে এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি। টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট জানান, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশেই ১৯টি কাউন্টির জন্যে ফেডারেল দুর্যোগ ঘোষণা করা হয়েছে। টেক্সাসের অন্তত আড়াইশোটি সড়ক ও মোটর যোগাযোগের রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলেও জানান অ্যাবট।

যাদের নৌকা আছে তাদেরকে উদ্ধার তৎপরতায় যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন হারিস কাউন্টির কর্মকর্তারা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মঙ্গলবার টেক্সাস পরিদর্শনে যাবেন বলেও জানানো হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য