শবনম বুবলী। এবারের ঈদে বেশ ভালোভাবেই পর্দায় ফিরছেন। এক বছর পর সামনের কোরবানি ঈদে দুটি নতুন ছবি নিয়ে আসছেন এই অভিনেত্রী। বর্তমানে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে সেসব ছবির প্রচারণায় ব্যস্ত রয়েছেন বলে নিজেই জানালেন। বুবলী গতকাল বলেন, প্রায় এক বছর পর নতুন দুটি ছবি নিয়ে আসছি আমি। ছবি দুটির নাম ‘অহংকার’ ও ‘রংবাজ’।

এগুলোর প্রচারণা নিয়েই ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছি। আর সে কারণে আরটিভিতে শাকিব খানসহ ঈদের একটি অনুষ্ঠান শেষ করেই একুশে টিভিতে গিয়েছিলাম। সেখানে এবারের ঈদে একটি অনুষ্ঠানে আমি একাই অতিথি হিসেবে থাকছি। অনুষ্ঠানে ছবিসহ নানা বিষয় নিয়ে আলাপ হয়েছে। এ ছাড়া ঈদের ছবিকে ঘিরে আরো কিছু অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার বিষয়ে কথা চলছে।

আশা করি, অনুষ্ঠানগুলো দর্শকদের ভালো লাগবে। বুবলীর অভিনয়ে শামিম আহমেদ রনির ‘বসগিরি’ ও রাজু চৌধুরীর ‘শুটার’ ছবি দুটি গত বছর মুক্তি পায়। আর এই ঈদে মুক্তি পাচ্ছে শাহাদৎ হোসেন লিটন পরিচালিত ‘অহংকার’ ও আবদুল মান্নানের ‘রংবাজ’। সেসূত্রে এবারও বুবলীর প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে নিজের সঙ্গে নিজেরই। কারণ তার দুটি ছবিই বিগ বাজেটের এবং দর্শকদের প্রত্যাশাও রয়েছে তাকে ঘিরে।

ছবি দুটিতেই নায়ক হিসেবে পেয়েছেন শাকিব খানকে। এ ছবি দুটি প্রসঙ্গে বুবলী বলেন, লিটন ভাই একজন গুণী নির্মাতা। তার ছবির গান এরইমধ্যে দর্শক পছন্দ করেছে। আর ‘রংবাজ’ ছবিটি ঈদকে কেন্দ্র করেই নির্মিত। লোকেশন ও গানে নতুনত্ব পাবে দর্শক। কারণ ছবির গানগুলো ইতালি ও সুইজারল্যান্ডে চিত্রায়িত। যা এরইমধ্যে অনেকের নজর কেড়েছে। দুটি ছবির কাহিনি দুই ধরনের। তাই দুটি ছবির মাধ্যমে দর্শক এবার দুই ধরনের বুবলীকে খুঁজে পাবেন।

শাকিব ও বুবলী অভিনীত ‘রংবাজ’ ছবিটি প্রযোজনা করছে রুপরঙ চলচ্চিত্র ও শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস। আর শাহাদৎ হোসেন লিটনের পরিচালনায় ‘অহংকার’ ছবিটি তুষার কথাচিত্রের ব্যানারে নির্মিত। এবারের ঈদেও সিনেমা হলে গিয়ে ছবি দুটি দেখবেন বলে জানিয়েছেন বুবলী। তিনি বলেন, গতবারের মতো এবারও ঈদে বোরকা পড়ে চুপি চুপি সিনেমা হলে ছবি দেখতে যাবো। কারণ দর্শকদের সঙ্গে বসে ছবি দেখতে আমার ভীষণ ভালো লাগে। এবার ঈদে ঢাকায় থাকছি।

বুবলী আরো বলেন, আমি এমনিতে একটু ঘরকুনো মানুষ। কাজ বাদে বাইরে তেমন থাকা হয় না। পরিবার-পরিজনকে ঈদের দিন সময় দেয়ার পরিকল্পনা আছে। তবে সিনেমা হলো যাবো অবশ্যই। ছবি দেখা মিস করতে চাই না। চলচ্চিত্রে কাজ করার পাশাপাশি এ যাবৎ বেশ উল্লেখযোগ্য সংখ্যক টিভি বিজ্ঞাপনে মডেল হওয়ার প্রস্তাব পেয়েছেন এ পর্দাকন্যা।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি এরইমধ্যে বেশকিছু পণ্যের টিভি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজের প্রস্তাব পেয়েছি। কিন্তু কোয়ালিটি পণ্যের বিজ্ঞাপন ছাড়া আমি কাজ করতে চাই না। এদিকে শুরু থেকেই খুব বেশি ছবিতে অভিনয় করতে চান নি বুবলী। এখন পর্যন্ত তার চাওয়া তেমনই। তিনি বলেন, আমি বছরে ১০-১২টা নয়, ভালো গল্পের ছবি ১-২ টা নিয়েই থাকতে চাই। সামনে ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়্যা’ নামে একটি ছবিতে কাজ করবেন এ অভিনেত্রী।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার ব্যানারে এটি নির্মাণ করবেন উত্তম আকাশ। এ প্রসঙ্গে বুবলী বলেন, গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীতে হলেও জন্ম ও বেড়ে ওঠা আমার ঢাকায়। এ কারণে কখনো নোয়াখালীর ভাষা বলা হয়নি। তাই এখন বাবা ও মায়ের কাছ থেকে এই ভাষা শেখা প্র্যাকটিস করছি। আশা করছি, ছবির শুটিংয়ের আগে ভাষাটি শিখে ফেলতে পারবো।

আর দর্শক আমাকে পর্দায় নোয়াখালীর মেয়ে হিসেবেই পাবে। ঈদের পরই এ ছবির শুটিং শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। তবে বর্তমানে আমার ভাবনাজুড়ে শুধু ঈদের ছবি। এর বাইরে অন্য কিছু নিয়ে ভাবতে চাই না। আমার বিশ্বাস, ছবিগুলো দর্শক ভালোভাবে গ্রহণ করবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য