কাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুর জেলার সর্ববৃহৎ গরু বেচা-কেনার হাট কাহারোল। এই কাহারোল হাটের গরু বেচা-কেনার ঐতিহ্য রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া ক্রয় করার জন্য আসে ক্রেতারা বা গরু ব্যবসায়ীরা।

দুর-দুরান্ত থেকে গরু, মহিষ, ছাগল কেনার জন্য আসায় গরু বিক্রেতারাও বেশি অর্থের লাভে এই হাটে তাদের পশু নিয়ে আসেন। আর কয়েকদিন পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা কোরবানির ঈদ। এই ঈদ কে সামনে রেখে কাহারোল হাটে গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া আমদানি হচ্ছে পর্যাপ্ত পরিমাণে। কিন্তু তবে গত বছরের চেয়ে এইবার কোরবানির পশুর দাম কম বলে জানান ক্রেতারা ও বিক্রেতারা।

সম্প্রতি ভয়াবহ বন্যা হওয়ায় এবং ভারত হতে গরু-মহিষ আসার ফলে গরুর দাম কম বলে অনেক ব্যবসায়ী ও খামার মালিকেরা জানান। তাই এবার কোরবানির পশুর দাম কম। গতকাল ২৬ আগষ্ট’১৭ শনিবার কাহারোল গরুর হাটে সরেজমিনে ঘুরে ক্রেতা-বিক্রেতা, গরুর খামার মালিক ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা যায়। কাহারোলের গরুর হাটে গিয়ে দেখা যায়, ছোট – বড়, ষাঁড় – বলদ, বকনা – গাভী সহ প্রায় দশ হাজারের বেশি গরু হাটে বিক্রি করার জন্য এনেছেন বিক্রেতারা।

উপজেলার সুন্দরপুর গ্রামের খামারী মোঃ বাদশা মিয়া হাটে বিক্রির জন্য ৬ টি ষাঁড় এনেছেন। গরুগুলোর কি পরিমাণ মাংস হবে জানতে চাইলে স্থানীয় কসাই মোঃ শাহিন জানান, প্রতিটি গরুর তিন থেকে সাড়ে তিন মণ মাংস হবে। গরুর দাম চাচ্ছেন ৬৫ হাজার থেকে ৭০ হাজার টাকা পর্যন্ত। অপর দিকে অন্য এক খামারি মোঃ আব্দুল হালিম তিনি কয়েকটি গরু বিক্রির জন্য নিয়ে এসেছেন ঐতিহ্যবাহী এই কাহারোলে হাটে। তিনিও জানিয়েছেন, প্রতি বছর ১৫ থেকে ২০ টি করে ষাঁড় লালন-পালন করে থাকেন।

গত কোরবানি ঈদের এক মাস পর এক একটি গরু ২৬ হাজার থেকে ২৭ হাজার টাকায় কিনেছেন রেখেছিলেন এই কোরবানির ঈদে বিক্রি করার জন্য। অনান্য বছর গুলোতে গরুর দাম ছিল বেশি। বর্তমানে বাজারে গরুর দাম অত্যন্ত কম। গরুগুলো বর্তমান বাজারে বিক্রি হলে ১ থেকে দেড় লক্ষ টাকা লোকসান গুনতে হবে। এই কাহারোল হাটে পাশ্ববর্তী বিরল উপজেলার রাজুরিয়া গ্রামের ভোলা নাথ বাবু জানান, কোরবানির হাটে তার পোষাকৃত গরু কাহারোল হাটে বিক্রির উদ্দেশ্যে নিয়ে আসেন কিন্তু গরুর দাম কম হওয়ায় গরুগুলি ফেরত নিয়ে যায় বাড়ীতে।

কাহারোল হাটে আসা গরু ব্যবসায়ী হামিদুর ইসলাম বলেন গতবছর ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে সেই গরুর দাম এখন ৩৫ হাজার থেকে ৪০ হাজার টাকায় বিক্রয় করতে হচ্ছে। জেলার ঐতিহ্যবাহী কাহারোল গরুর হাটে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে ক্রেতা ও ব্যবসায়ীরা গরু ক্রয় ট্রাকে করে নিয়ে যেতে দেখা যাচ্ছে। কোরবানির হাট উপলক্ষে গরু ব্যবসায়ীদের বিশেষ নিরাপত্তা দিতে প্রতি শনিবার করে পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে বলে কাহারোল থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মোঃ আইয়ুব আলী জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য