মোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকেঃ বীরগঞ্জে বৃহস্পতিবার ১০ কেজি ওজনের গাজা উদ্ধার করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানা সুত্রে জানা গেছে, ওসি আবু আক্কাছ আহ্মদ এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ গত বুধবার গভীর রাত ৩ টার সময় উপজেলার সাতোর ইউনিয়নের দলুয়াহাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে মোস্তফার দোকান ঘর থেকে একটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় আনুমানিক ৮০হাজার টাকা মুল্যের ১০ কেজি ওজনের গাজা উদ্ধার করেছে।

বীরগঞ্জ থানার এসআই সাইদুল ইসলাম বাদী হয়ে প্রাননগর গ্রামের বোরহান উদ্দিনকে আসামী করে ১৯৯০ইং সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন সংশোধনী/২০০৪ইং আইনের ১৯(১) টেবিল এর ৭ (১) ধারায় একটি ১১(৮)১৭ নং-মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই প্রভাত চন্দ্র সরকার জানান, আসামী ঘটনাস্থল থেকে মোটর সাইকেল যোগে পালিয়ে গেছে তাকে ও তার সঙ্গীকে গ্রেফতারের জোর তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

ইউপি সদস্য নাসির উদ্দিন, এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে মোটর সাইকেল অঅরোহীকে ধাওয়া করলে কেজি গাজা রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশকে সংবাদ দেওয়া হলে পরে আলু ও ভুট্টা ব্যবসায়ী মোস্তফার দোকান থেকে আরও এক বস্তা (১৬ কেজি গাজা উদ্ধার করা হয়।

সচেতন নাগরিক ও প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান, সম্প্রতি এলাকায় মদ-গাজা, ফেন্সিডিল, ইয়াবা, হিরোইনের মত ভয়ংঙ্ক মাদকের রমরমা ব্যাবসা চলছে এবং উটতি বয়সের যুব-সমাজকে ধ্বংশের মুখে নিয়ে যাচ্ছে। এদের রুখে দিয়ে যুবসমাজকে রক্ষার জন্য পুলিশের উর্ধতন কতৃপক্ষের আশু কস্তক্ষেপের জোর দাবি জানিয়েছেন তারা।

ওসি আবু আক্কাছ আহ্মদ সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বীরগঞ্জ থানা পুলিশ অতিতে কখনও এতো বড় গাজার চালান ধরতে পারেনি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে এই গাজার পিছনে কারা রয়েছে তাদেরকেও শাস্তির আওতায় আনা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য