জয়পুর ও মুম্বাইয়ে হামলার শিকার হওয়ার পর ভীষণ সতর্কতা ও গোপনীয়তার সঙ্গে ‘পদ্মাবতী’ সিনেমার শুটিং চালিয়ে যাচ্ছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানশালী। ঐতিহাসিক এ সিনেমার নামভূমিকায় রয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন। তাঁর বিপরীতে সুলতান আলাউদ্দিন খিলজির চরিত্রে অভিনয় করছেন রণবীর সিং। এ দুই তারকাকে বানশালীর পরামর্শ ছিল, আপাতত এক ফ্রেমে দুজনকে যেন অন্তরঙ্গভাবে দেখা না যায়। তাতে ‘পদ্মাবতী’র ক্ষতি হবে। কিন্তু বানশালীর সর্বনাশ যা হওয়ার হয়ে গেছেÑসামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে দীপিকা-রণবীরের চুমুর ছবি!

দুজনের অন্তরঙ্গ সাদা-কালো ছবিটি পোস্ট করা হয়েছে এক ফ্যানপেজের মাধ্যমে। ভারতীয় গণমাধ্যমের ধারণা, ছবিটি দুই বছর আগে ‘ভোগ’ ম্যাগাজিন ফটোশুটের আগে পর্দার পেছনে ধারণকৃত ভিডিওর একটি স্থিরচিত্র। বানশালী কিন্তু এতে বেশ বিরক্ত। ডাকসাইটে এ পরিচালকের সিনেমা-সংশ্লিষ্ট এক সূত্র জানিয়েছে, ‘রণবীর ও দীপিকা মন দেওয়া-নেওয়া করছেন কি না, এ নিয়ে তাঁর (বানশালী) কোনো আগ্রহ নেই।

তিনি শুধু দুজনের অন্তরঙ্গ ছবি এড়াতে চেয়েছিলেন। কারণ, তাতে ছবির ক্ষতি হতে পারে। বিক্ষোভকারীরা চায় না সিনেমাটিতে তাঁদের (দীপিকা-রণবীর) একসঙ্গে কোনো দৃশ্য থাকুক। এ কারণে সর্বসাধারণের সামনে অন্তত তাঁদের অন্তরঙ্গ ছবি এড়িয়ে যেতে চেয়েছিল প্রযোজক ভায়াকম ১৮ মোশন পিকচার ও পরিচালক বানশালী।’

চলতি বছরের জানুয়ারিতে জয়পুরে ‘পদ্মাবতী’র শুটিং চলাকালে ‘রাজপুত কর্ণী সেনা’ নামে এক হিন্দু উগ্রবাদী সংগঠনের সদস্যরা হামলা চালান বানশালীর শুটিং বহরে। এতে শারীরিকভাবে আহত হয়েছিলেন বানশালী ছাড়াও আরও কয়েকজন। চিতোরের রানি পদ্মিনীর জীবন অবলম্বনে বানানো হচ্ছে ‘পদ্মাবতী’ সিনেমা। বিক্ষোভকারীদের দাবি, যে আলাউদ্দিন খিলজির হাত থেকে বাঁচতে জহর ব্রত (আগুনে ঝাঁপ কিংবা বিষ খাওয়া) পালন করেছিলেন রানি পদ্মিনী, সেই মুসলিম সুলতানের সঙ্গে পদ্মিনীর ঘনিষ্ঠ দৃশ্য রয়েছে সিনেমাটিতে।

এ কারণে হিন্দু উগ্রবাদী সংগঠনের বিক্ষোভকারীরা ‘পদ্মাবতী’ সিনেমায় দীপিকা-রণবীরের অন্তরঙ্গ কোনো দৃশ্য রাখার বিপক্ষে। মুম্বাইয়ে হামলার শিকার হয়েছে ‘পদ্মাবতী’র শুটিং বহর। ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা চলতি বছরের ১৭ নভেম্বর। তিক্ত অভিজ্ঞতার কারণে বানশালী খুব হিসাব করে এগোচ্ছেন। এর মধ্যে এমন ছবি ভাইরাল হলো।

বলিউডে গুঞ্জন, কয়েক বছর ধরেই চুটিয়ে প্রেম করছেন দীপিকা-রণবীর। যদিও জনসমক্ষে তাঁরা ব্যাপারটা কখনো স্বীকার করেননি। কিছুদিন শোনা গিয়েছিল, দুজনের সম্পর্কচ্ছেদ হয়েছে। কিন্তু ভাইরাল হওয়া ছবিটা দিয়ে আবারও আলোচনায় উঠে এল দুজনের সম্পর্ক। যদিও এর খেসারত গুনতে হতে পারে ‘পদ্মাবতী’কে। সূত্র: ডেকান ক্রনিকেল, হিন্দুস্তান টাইমস।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য