রাশিয়ায় ভিসা কার্যক্রম স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়ার মার্কিন দূতাবাস জানিয়েছে, সব ধরনের অনঅভিবাসী ভিসার কাজ ৯ দিনের জন্য স্থগিত করা হচ্ছে। আর মার্কিন কনস্যুলেটগুলোতে ভিসা কার্যক্রম বন্ধ হচ্ছে অনির্দিষ্টকালের জন্য।

রাশিয়া সরকার মার্কিন দূতাবাসের কর্মীসংখ্যা কমাতে বলার কারণেই এ পদক্ষেপ নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়ার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নতুন নিষেধাজ্ঞার জবাবে মস্কো সেখানকার মার্কিন দূতাবাসকে কর্মীসংখ্যা কমাতে বলেছিল।

সোমবার মার্কিন দূতাবাস এক বিবৃতিতে বলেছে, “রাশিয়াজুড়ে সব অনঅভিবাসী ভিসা কার্যক্রম ২৩ অগাস্ট থেকে বন্ধ হয়ে যাবে। ১ সেপ্টেম্বর থেকে কেবল মস্কোর মার্কিন দূতাবাসে আবার তা চালু হবে। আর মার্কিন কনস্যুলেটগুলোতে ভিসা কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে।”

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের জন্য যারা ইতোমধ্যেই ভিসার আবেদন করেছেন সেগুলো নয়দিনের জন্য বাতিল হয়ে যাবে। তাদেরকে আবার নতুন করে ভিসা আবেদন করার নির্দেশ দেওয়া হবে।”

তবে মস্কোর মার্কিন দূতাবাস এবং তিনটি মার্কিন কনস্যুলেটই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের জন্য জরুরি ও নিয়মিত সেবা চালু রাখবে বলেও জানানো হয়েছে বিবৃতিতে।

ওয়েবসাইটে ভিসা আবেদনকারীদেরকে মার্কিন দূতাবাস জানিয়েছে, “ভবিষ্যতে রাশিয়ায় ভিসা ইন্টারভিউও নেওয়াও অনেক কমে যাবে। রাশিয়া সরকারের নির্দেশমত কর্মীসংখ্যা কমানোর কারণেই ভিসা ইন্টারভিউয়ের কাজ কমানোর প্রয়োজন পড়বে।”

রাশিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক সম্পর্কে অবনতির মধ্যে এ পদক্ষেপ নতুন মাত্রা যোগ করবে। যুক্তরাষ্ট্রের এ পদক্ষেপ রাশিয়ার নাগরিকদের অসন্তোষই আরও উস্কে দেবে বলে এরই মধ্যে মন্তব্য করেছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ।

রাশিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা কার্যক্রম কমে আসলে আগে যেসব রুশ নাগরিক স্থানীয়ভাবে বিভিন্ন জায়গা থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ ভিসার জন্য আবেদন করতে পারতেন ভবিষ্যতে তা আর করতে পারবেন না। আবেদন করতে হলে তাদেরকে মস্কোর মার্কিন দূতাবাসে যেতে হবে।

তাছাড়া, দূতাবাস কর্মী সংখ্যায় পরিবর্তন ঘটার কারণে অভিবাসী ভিসা প্রক্রিয়াতেও এর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য