মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) থেকেঃ পঞ্চগড়ের বোদায় দীর্ঘ সময়ে খরার পর হঠাৎ বন্যায় অনেক কৃষক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বর্ষা মৌসুমে পরিমিত বৃষ্টি পানি না হওয়ায় অনেক কৃষক শ্যালো মেশিন ও গভীর নলকুপের মাধ্যমে আমন ধানের চারা রোপন করেছেন। তারপরেও অনেক কৃষক বৃষ্টির পানির আশায় আমন ধানের চারা রোপন করেননি। তারপর হঠাৎ ৪দিনের বৃষ্টির পানিতে বন্যার সৃষ্টি হয়।

বন্যার পানি অল্প দিনের মধ্যে কমে যাওয়ায় কৃষকেরা বর্তমানে ব্যস্ত সময়ে আমন ধানের চারা রোপন করছেন। এদিকে বর্ষা মৌসুম চলে যাওয়ায় এবং ভাদ্র মাস পরে গেছে। কৃষকরা বলেছেন তাদের আমন ধান রোপন করা সময় শেষ হয়েছে। সে কারণে তারা যে ভাবে ধানের চারা রোপন করছেন তাতে সপ্তাহ সময়ের মধ্যে রোপন কাজ শেষ করবেন। অপরদিকে বন্যায় অনেক ধানের চারা নষ্ট হয়ে গেছে। কৃষকরা আবার ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষেত গুলো পুনরায় রোপন কাজ সম্পাদন করছেন।

এ কারণে অনেক কৃষক ধানের চারার সংকটের মধ্যে পড়ে গেছেন। অনেক কৃষক তাদের রোপনকৃত ধানের চারা পুনরায় রোপন করছেন চারা সংকটের কারণে। এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার আল মামুন অর রশিদ জানান, চলতি মৌসুমে আমন ধানের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ২২৫০ হেক্টর। র্দীঘদিন খরার পর শেষ সময়ে প্রচুর বৃষ্টি পাতে কৃষকরা লক্ষমাত্রা অনুযায়ী ধানের চারা রোপন করতে পারবেন।

শেষ সময়ে আমন ধানের চারা রোপন করলেও তাতে কোন ক্ষতি হবে না কৃষকদের। তবে আগের চেয়ে শেষের রোপন কৃত ধানের ফলন অল্প পরিমাণ কম হতে পারে। হঠাৎ বন্যায় অনেক কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উপজেলা কৃষি বিভাগ সেই সব ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের তালিকা তৈরী করেছেন । তাদের পরবর্তীতে বিভিন্ন প্রকার সহযোগিতা করা হবে বলে তিনি জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য