সেই ‘স্টুডেন্টস অফ দ্য ইয়ার’ থেকে শুরু। দু’জনেরই প্রথম সিনেমা। নবাগত। দু’জনেই এসেছেন ফিল্মি ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে। পরিচালক করণ জোহর হাত ধরে তাদের এনেছেন রূপালি পর্দার দুনিয়ায়। বলা হচ্ছে বলিউডের এ সময়ের জনপ্রিয় জুটি বরুণ ধাওয়ান ও আলিয়া ভাটের কথা।

বিরাট কোহলি ও আনুশকা শর্মাকে একডাকে যেমন ‘বিরুষ্কা’ ডাকা হয়, বরণ-আলিয়াকেও তেমন ভারিয়া(ঠধৎরধ) বলে ডাকেন অনেকে। আদরের ডাক। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই এদের বন্ধুত্ব অটুট। রসায়নও জোরালো। তারই ছাপ পড়েছিল ‘বদ্রিনাথ কি দুলহানিয়া’ ছবিতে। ‘টয়লেট এক প্রেমকথা’র আগে এ বছরের সফল ছবি বলতে বরুণ-আলিয়ার এ ছবিই।

বহু তাবড় তারকা যখন ব্যর্থ, তখন বক্স অফিসে জোয়ার এনেছিলেন তারা। কিন্তু সে জুটি আর থাকার কথা নয়। কারণ বরুণের সঙ্গে জুটি বাঁধার ব্যাপারে আপাতত না বলেই দিয়েছেন আলিয়া। এতে সম্মতি আছে বরুণেরও। এ খবর দিয়েছে কলকাতার জনপ্রিয় দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন।

সে খবরে আরো বলা হয়েছে, দুই তরুণ অভিনয়শিল্পীই মনে করছেন, এক জুটিতে আটকে থাকা কোনো কাজের কথা নয়। বরং অন্য অভিনয়শিল্পীর সঙ্গে কাজ করে নিজেদের বাজিয়ে দেখে নিতেই চাইছেন তারা। ফলত জুটির যাত্রা থেকে আপাতত অবসরেরই সিদ্ধান্ত। বলিউডে এখন নানা স্বাদের ছবি।

বিষয় বৈচিত্রে পরিচালকরা চমকে দিচ্ছেন। ফলে এই পরিস্থিতিতে অভিনয়শিল্পী হিসেবে নিজেদের আরো নতুনত্বে নিতে চাইছেন বরুণ-আলিয়া। নানা অভিনয়শিল্পীর সঙ্গে কাজ করা মানেই নতুন দিক খুলে যাওয়া। অভিনয়ে, কাজের ধরনেও। সেখানে জুটির ক্ষেত্রে সুবিধাও যেমন আছে, তেমন কিছু গতানুগতিকতাও থাকে। সেটাই অতিক্রম করতে চাইছেন তরুণ ও বিচক্ষণ বরুণ-আলিয়া।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য