রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাও) প্রতিনিধিঃ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ ধাপে রানীশংকৈল, হরিপুর ও পীরগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী থাকার কারণে জেলার তিনটি উপজেলায় একক প্রার্থী দিয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে বিএনপি জামায়াত। বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ২৭ ফেব্রুয়ারী দ্বিতীয় ধাপে জেলার রানীশংকৈল উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আইনুল হক মাস্টার (ঘোড়া) প্রতীক নিয়ে ৪৪ হাজার ২৮ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শাহরিয়ার আজম মুন্না (আনারস) প্রতীক নিয়ে ২৫ হাজার ৪৪৭ ভোট, আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল কাদের (মোটরসাইকেল) প্রতীক নিয়ে ১৯ হাজার ৪৭১ ভোট পান। এবং আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান সইদুল হক  (দোয়াতকলম) প্রতীক নিয়ে ১৪ হাজার ৮০৭ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। অপর দিকে জামায়াতের মনোনীত প্রার্থী ভাইস চেয়ারম্যান পদে মিজানুর রহমান মাস্টার (বৈদ্যুতিক বাল্ব) প্রতীক নিয়ে ৫১ হাজার ৪৬৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী দিগেন্দ্র নাথ রায় (তালা) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২২ হাজার ৩২৭ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সেলিনা জাহান লিটা (পদ্মফুল) প্রতীক নিয়ে ৪২ হাজার ৭৪৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মুনিরা বিশ্বাস (ফুটবল) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২৬ হাজার ৪৩ ভোট।

হরিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান পদে বিএনপি সমর্থিত একক প্রার্থী অধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম বিজয়ী হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শামিম ফেরদৌস টগর ভাইস চেয়ারম্যান পদে জামায়াত মনোনিত প্রার্থী সহকারী অধ্যাপক মাওলানা রফিকুল ইসলাম ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি মনোনিত প্রার্থী নাজমা বেগম বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নাজমা বেগমের প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাবিনা ইয়াসমিন। চেয়ারম্যান পদে নুরুল ইসলাম ১৮ হাজার ৪৯ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান শামিম ফেরদৌস টগরকে পরাজিত করেছেন। নুরুল ইসলাম (কাপ পিরিচ) প্রতিক নিয়ে ৩৫ হাজার ৪৬৪ ভোট পেয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শামীম ফেরদৌস টগর (ঘোড়া) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১৭ হাজার ৪১৫ ভোট আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী জিয়াউল হাসান মুকুল (মোটর সাইকেল) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১১ হাজার ৩৪৫ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যান পদে জামায়াত মনোনীত প্রার্থী মাওলানা রফিকুল ইসলাম (তালা) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৪০ হাজার ৯৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী নগেন কুমার। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী নাজমা বেগম (কলস) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৪২ হাজার ৯৩২ ভোট তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী (হাস) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ২৪ হাজার ৫২২ ভোট।

ঠাকুরগাওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলায় ১৯ দলের একক প্রার্থী বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শিবগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক জিয়াউল ইসলাম জিয়া (আনারস) প্রতিক নিয়ে ৫৯ হাজার ৭২৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: ইকরামুল হক (মোটর সাইকেল) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৫৭ হাজার ৪৪১ ভোট। অপর ২ প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল ইসলাম (দোয়াত কলম) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১৩শ ১৪ ভোট ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হারুন উর রশিদ পারুল (ঘোড়া) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৬ শ ৫৪ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা জামায়াতের আমির ডিএন ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক আবুল কাশেম (চশমা) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৬৬ হাজার ৮২১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি সুকুমার রায় (টিউবওয়েল) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৩৬ হাজার ৮৫৬ ভোট অপর প্রতিদ্বন্দ্বি উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আশরাফ আলী বাদশা (তালা) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১৩ হাজার ২৩৮ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মোছা: পারুল বেগম (কলস) প্রতিক নিয়ে ৫৪ হাজার ২৯৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ভারতী রাণী রায় (হাস) প্রকি নিয়ে পেয়েছেন ৫৪ হাজার ২৯৭ ভোট অপর প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী সিতা রাণী রায় (ফুটবল) প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৫ হাজার ১৯৩ ভোট।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য