মোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জ থেকেঃ বীরগঞ্জে ঢেপা নদীতে নিখাঁজের ৪দিন পর জাহাঙ্গীর (২৬)’র লাশ উদ্ধার ও দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ পৌরসভার ৫নং-ওয়ার্ডের থানাপাড়া মহল্লার মৃত ইসলাম খানের ছেলে নীলফামারী জেলায় ফারিষ্ট ইসুরেন্সে (এ) কর্মরত জাহাঙ্গীর আলম গত রবিবার রাতে বীরগঞ্জ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের থানা পাড়া মহল্লায় নিজ বাড়ীতে ফেরার পথে নিজপাড়া ইউনিয়নের প্রেম বাজার এলাকা থেকে

বীরগঞ্জ-ঝাড়বাড়ী পাকা রাস্তায় বন্যার হাটু পানিতে পায়ে হেটে ৪/৫জন এক সাথে বাড়ী ফিরছিল। ঢেপা নদীর ব্রীজের কাছে পৌছে বড়ভাই মাসুদ রানার সাথে ৩০/৪০ ফিট দুরত্বে মোবাইলে কথা বলতে বলতে হঠাৎ পা ফসকে ঢেপা নদীতে ভেসে যায় জাহাঙ্গীর।
সোমবার, মঙ্গলবার ও বুধবার অনেক খুজাখুজির পর ২৫ কিলোমিটার ভাটিতে দিনাজপুর জেলা সদর নসিপুর ফার্মের ২ কিলোমিটার পশ্চিমে পুর্ণভবা নদীর বালু চরে পরে থাকা লাশ ৪দিন পর উদ্ধার করা হয়। জাহাঙ্গীরের লাশ নিজ বাড়ীতে আনা হলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা হয়।

বুধবার রাতে কবি নজরুল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে মাকড়াই কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়েছে। মৃত্যুকালে স্ত্রী ১টি ছেলে সন্তান ভাই-বোন, বন্ধু-বান্ধব ও বহু আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। জাহাঙ্গীর আলমের অকাল মৃত্যুতে পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাওঃ মোহাম্মদ হানিফ,

বীরগঞ্জ প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ আবেদ আলী, পৌর প্যানেল মেয়র মেহেদী হাসান, উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আলহাজ মোঃ মন্জুরুল ইসলামসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশা ও সংগঠনের নেতা-কর্মীগন গভীর শোক প্রকাশ করেন ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য