আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধি: গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যার ফলে রাস্তা-ঘাট, ঘর-বাড়ি ফসলি জমিসহ অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে ব্যাহত হয়ে পড়ে পাঠদান। আর এরই মধ্যে এসে যায় পরীক্ষা। কিন্তু বন্যার পানিতে বিদ্যালয় ডুবে যাওয়ায় লালমনিরহাট জেলার ৩২৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।বুধবার (১৬ আগস্ট) বিকালে জেলার সদর ও হাতীবান্ধা উপজেলার মোট ৩২৫ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরীক্ষা স্থগিতের আদেশ দেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

(১৯ আগস্ট) থেকে ২য় সময়িক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো।লালমনিরহাট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নবেজ উদ্দিন সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তিস্তা, ধরলা ও সানিয়াজান নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে লালমনিরহাটের ৫উপজেলায় ভয়াবহ বন্যা দেখা দেয়। এতে অধিকাংশ প্রাথমিক বিদ্যালয় পানি বন্দি হয়ে পড়ে।

তিনি আরো জানান, এ ছাড়া বন্যার্ত লোকজন বসত-বাড়ি ছেড়ে বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছে। অনেকেই এখনো বাড়ি ফেরেননি। ফলে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসতে পারছে না। সে কারণে লালমনিরহাট সদর ও হাতীবান্ধা উপজেলার ৩২৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় সময়িক পরীক্ষা অনির্দিষ্ট কালের জন্য স্থাগিত করা হয়েছে। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ১৪৮ টি ও হাতীবান্ধা উপজেলায় ১৭৭ টি বিদ্যালয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য