২৭ বছর পর জন্য নিজের সীমান্ত খোলার পরিকল্পনা করছে সৌদি আরব ও ইরাক। ১৯৯০ সালের পর থেকে কখনও আরার নামে এই সীমান্তের দরজা খোলা হয়নি। গত ২৭ বছরে কেবল হজ উপলক্ষে সীমান্তের মাত্র একটি দরজা খুলে দেয়া হয় মঙ্গলবার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা এসব তথ্য নিশ্চিত করে।

মধ্যপ্রাচ্যের সংবাদ পর্যবেক্ষণের ব্রিটিশ সংস্থা মিডল ইস্ট মনিটরের এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, কুয়েতে সাদ্দাম হুসেইনের আগ্রাসনের পর থেকে এই সীমান্ত আর ব্যবহার করেনি দুই দেশ। সম্প্রতি এই স্থান পরিদর্শনে গিয়েছিলেন দুই দেশের কর্মকর্তারা।

ইরাকের আনবার প্রদেশের গভর্নর সোহাইব আল-রাঈ বলেন, আরারে সীমান্ত খুলে দেওয়ার অনুষ্ঠানে তারা নিরাপত্তা জোরদার করেছেন। এই পদক্ষেপ দুই দেশের সম্পর্কোন্নয়নে মাইলফলক হয়ে থাকবে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘ইরাক ও সৌদি আরবের ভবিষ্যত সম্পর্কের জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

জানা গেছে, ইরাকের সঙ্গে যৌথ বাণিজ্য করার উদ্দেশ্যে সৌদি মন্ত্রিসভা সোমবার এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। ২০১৫ সালে সুন্নিদের দেশ সৌদি আরব ২৫ বছর পর বাগদাদে তাদের দূতাবাস চালু করে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-যুবাইর বাগদাদ সফরে যান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য