সিয়েরা লিয়নে ভয়াবহ বন্যা ও ভূমিধসে নিহত ৪০০ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে দেশটির উদ্ধারকর্মীরা। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন প্রায় ৬০০ জন। বুধবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির রাজধানী ফ্রিটাউনে ভয়াবহ বন্যা ও ভূমিধসে জীবনযাত্রা অচল হয়ে পড়েছে। প্রেসিডেন্ট আর্নেস্ট বাই কোরোমা বলেছেন, ‘পুরো এলাকা ভেসে গেছে। আমাদের জরুরি সহায়তা দরকার।’

রেড ক্রসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের হাতে সময় খুব কম। লাশঘরেও পর্যাপ্ত জায়গা নেই। এজন্য গণকবরেরও চিন্তা করা হচ্ছে। প্রধান করোনার সেনেহ ডামবুইয়া বলেন, ‘আমরা ৪০০ মরদেহ উদ্ধার করেছি। তবে ৫০০ এরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে বলে আমাদের ধারণা।’

মর্গের প্রধান ওউজ কোরোমা বলেন, আমাদের এখানে পর্যাপ্ত জায়গা নেই। খুব তাড়াতাড়িই আমাদের ডেথ সার্টিফিকেট দিয়ে দাফন করতে হচ্ছে। বৃহস্পতিবার তাদের দাফন করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন সরকারের মুখপাত্র কর্নেলিস দোভো।

প্রবল বর্ষণ আর ভূমিধসে পশ্চিম আফ্রিকার বিপন্ন দেশ সিয়েরা লিয়ন এখন অচেনা মৃত্যুপুরী। রাজধানী ফ্রিটাউনের কাছের এক অঞ্চল ঢেকে গেছে কাদামাটিতে। তলিয়ে গেছে অধিকাংশ বাড়িঘর। কাদামাটির স্রোতে ভেসে বেড়াচ্ছে মানুষের মরদেহ। চারপাশ জুড়ে কেবল মৃত্যুর গন্ধ। তবু জীবন বাজি রেখে কাদামাটির স্তূপ থেকে প্রাণের স্পন্দন শোনার চেষ্টা করছেন উদ্ধারকারীরা।

মঙ্গলবার ভাইস প্রেসিডেন্ট ভিক্টর ফোহ বলেছিলেন, অনেকেই কাদার মধ্যে ডুবে গেছে। কাজেই মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। তিনি বলেন, ‘বিষয়টি এতটাই মর্মান্তিক যে, আমি নিজেও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছি। আমরা এলাকাটি ঘিরে রেখে দুর্গতদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিচ্ছি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য