ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, ‘সরকার কাশ্মির সমস্যা সমাধানের জন্য সম্পূর্ণ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এ নিয়ে অনেক আড়ম্বরপূর্ণ কথা হয়, একে অন্যকে গালি দেয়ার জন্য তৈরি হয়, কিন্তু গালি ও গুলিতে কাশ্মির সমস্যার সমাধান হবে না। কাশ্মিরি জনতাকে আলিঙ্গনের মাধ্যমেই সমস্যার সমাধান হবে।’

আজ (মঙ্গলবার) ভারতের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে দিল্লির ঐতিহাসিক লালকেল্লা থেকে দেয়া ভাষণে তিনি ওই মন্তব্য করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কাশ্মির সমস্যার সমাধান সরকারের পাশাপাশি প্রত্যেক ব্যক্তির কাজ। কাশ্মিরকে আমরা পুনরায় স্বর্গ তৈরি করতে দায়বদ্ধ। গালি দিয়ে বা গুলির মাধ্যমে ওই সমস্যা মিটবে না, আলিঙ্গনের মাধ্যমেই সমস্যা সমাধান হবে- এই সংকল্প নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নয়া ভারত গড়তে সকলেই এগিয়ে আসুন। ২০২২ সালে নতুন ভারতের জন্য সংকল্প গ্রহণ করতে হবে যে দেশে সন্ত্রাস, জাতিভেদ, দুর্নীতি থাকবে না। সেখানে সবাই সমান সুযোগ পাবে।’

প্রধানমন্ত্রী জাতপাত ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সতর্কবার্তা উচ্চারণ এবং বিভেদকামীদের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘জাতপাত ও সম্প্রদায়ের লড়াই বন্ধ করতে হবে। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে এগোতে হবে। হিংসা করে কখনো উন্নয়ন হয় না। ভগবান বুদ্ধ ও গান্ধীর দেশে হিংসা চলবে না। দেশে সাম্প্রদায়িকতার জায়গা নেই। যারা শান্তির নামে সহিংসতা ছড়াচ্ছে তারা সাবধান। ধর্মের অজুহাতে সহিংসতা মেনে নেওয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য