ভারতের হিমাচল প্রদেশে বড় ধরনের একটি ভূমিধসের ঘটনায় অন্তত সাতজন নিহত ও বহু নিখোঁজ রয়েছেন। রোববার দিনের শুরুতে রাত ১২টা ২০ মিনিটে হিমাচলের মান্ডি জেলায় ভূমিধসের এ ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় কর্মকর্তাদের বরাতে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা আইএএনএস।

জেলার কোটরোপি গ্রামের কাছে মান্ডি-পাঠানকোট মহাসড়কের এ ভূমিধসে বেশকিছু ঘরবাড়ি ছাড়াও প্রাদেশিক রোড ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশনের দুটি বাস ও কিছু ব্যক্তিগত যানবাহন চাপা পড়েছে বলে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ, ভারতীয় সেনাবাহিনী ও দেশটির জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনী মিলে তল্লাশি ও উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পাঁচ জনকে উদ্ধার করে মান্ডি শহরের জোনাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই শহরটি থেকে দুর্ঘটনার স্থানটি প্রায় ২২০ কিলোমিটার দূরে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, যাত্রাবিরতিতে দুটি বাস একটি দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে থাকার সময় ভূমিধসের ঘটনাটি ঘটে।

মহাসড়কটির ১৫০ মিটারের মতো অংশ ধসে পড়া কাদার স্রোতের সঙ্গে বিলীন হয়ে যায়। দুটি বাসের মধ্যে একটি চাম্বা থেকে মানালি যাচ্ছিল, অপরটি মানালি থেকে ফিরে জম্মুর কাটরা যাচ্ছিল। চাম্বার বাসটিতেই বেশি যাত্রী ছিল। দুটি বাসই বিশাল কাদামাটির স্তূপ ও বড় বড় বোল্ডারের নিচে চাপা পড়েছে।

কাটরাগামী বাসটির ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার করা হয়েছে। বাসটির আট যাত্রীর মধ্যে তিনজন নিহত হয়েছেন। মানালীগামী বাসটির ২১ যাত্রী অনলাইলে তাদের টিকিট কেঁটেছিলেন বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। তবে দুর্ঘটনার সময় বাসটিতে ৩৫ থেকে ৫০ জন যাত্রী ছিলেন বলে তাদের ধারণা।

বাসটি রাস্তা থেকে ৮০০ মিটার নিচে পড়ে গিয়ে প্রচুর ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপ পড়ে রয়েছে, সেখানে পৌঁছতে উদ্ধারকারীদের বেগ পেতে হচ্ছে। এক কর্মকর্তা আইএএনএসকে বলেছেন, “নিখোঁজের সঠিক সংখ্যা বের করার চেষ্টা হচ্ছে। এ পর্যন্ত করা হিসাবে ২৫ থেকে ৩০ জন নিখোঁজ বলে ধারণা পাওয়া গেছে।”

রাজ্যের রাজস্বমন্ত্রী নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে চার লাখ রুপি করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। হিমাচলের মুখ্যমন্ত্রী বীরভদ্র সিং এবং বিরোধীদলীয় নেতা প্রেম কুমার ধুমাল দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য