চিরিরবন্দরে পারিবারিক জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন এক মহিলাকে কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে জখম করলে আশংকাজনক অবস্থায় প্রতিবেশি লোকজন ওই মহিলাকে স্থানীয় চিরিরবন্দর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার সাঁইতাড়া ইউনিয়নের কালিতলা বাজার এলাকার গমির শাহ পাড়ায় ।

হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, মারাত্মক ভাবে মাথার সামনে ও পিছনে কাটা-জখম অবস্থায় সাঁইতাড়া ইউনিয়নের কালিতলা বাজার এলাকার গমির শাহ পাড়ার মকবুল হোসেনের স্ত্রী আমেনা বেগম(৫৫)কে প্রতিবেশিসহ আত্মীয়-স্বজন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে আসলে তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক।

আহত ওই মহিলার স্বজনরা জানান, বাড়ীর সামনে খুলিয়ান নিয়ে আপন চাচাত ভাইদের সাথে তাদের দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্বের জের ধরে রোগীর চাচা শ্বশুর মৃত মনসুর আলীর ছেলে দেবর সম্পর্কিত আব্দুল বাকী ও তার ছেলে ভাতিজা আসাদুর রহমানসহ পরিবারের অন্যান্য লোকজন অতর্কিতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এসময় আব্দুল বাকী (৪৮) একটি কুড়াল দিয়ে ওই রোগীকে আঘাত করলে মাথার সামনে ও পিছনে কেটে গিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত হয়।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ মর্তুজা আল মামুন জানান, মাথায় আঘাতের গভীরতার কারণে প্রচুর রক্তক্ষরণে রোগীর অবস্থা আশংকাজনক। তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। প্রয়োজনীয় পরিক্ষা- নিরীক্ষা করে তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারেসুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি শুনেছি। অভিযোগ পেলে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য