দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে ৭১’র মানবতা বিরোধী একটি হত্যা ঘটনার তদন্ত হয়েছে। উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়ন পরিষদে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের তদন্ত কর্মকর্তা অতিরিক্ত আই জি পি নাজমুল হক পি পি এম ঘটনার তদন্তে এসে প্রত্যদর্র্শী স্বাক্ষীদের মূখে মানবতা বিরোধী ওই ঘটনার বর্ণনা শোনেন।

স্বাক্ষী প্রদান করেন হরিরামপুর বেলালপাড়া গ্রামের মৃত আঃ ছালামের ছেলে আঃ রহমান ও চকজুনিত গ্রামের মৃত শংকর হাসদার ছেলে লগেন হাসদা। তদন্ত কর্মকর্তা জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রফেসর আনোয়ার হোসেন নামে একজন ট্রাইবুনালে অভিযোগ দায়ের করেন দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের হরিরামপুর বেলালপাড়া গ্রামে ৩ আদিবাসী মেয়েকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হত্যা করেছিল তৎকালীর স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার উপজেলার হেয়াতপুর গ্রামের মৃত তুফানের ছেলে ইসলাম ও মৃত হাসিম উদ্দীনের ছেলে নইমুদ্দীন। যারা বর্তমানে বেঁচে নাই।

এ সময় বিরামপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার এ এস এম হাফিজুর রহমান,নবাবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ সুব্রত কুমার সরকার, নবাবগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার দবিরুল ইসলাম,দিনাজপুর জেলা পরিষদের সদস্য একরামুল হক, নবাবগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আমির হোসেন,নবাবগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মতিয়ার রহমান সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য