দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর থেকেঃ কর্তৃপক্ষের অবহেলা, উদাসীনতা ও তদারকির অভাবে দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড (বিআরডিবি)’র অধিভুক্ত উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির নামীয় সাড়ে ৫ কোটি টাকার সম্পত্তি দীর্ঘদিন ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকায় মোটা অংকের আয় হতে বঞ্চিত হচ্ছে ১৬৭ কৃষক সমবায় সমিতির সদস্যগণ। আর এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কিছু স্থানীয় জমি দখলদার পর্যায়ক্রমে উক্ত সম্পত্তি দখল করছে।

জানা,গেছে চিরিরবন্দর মৌজার ঘুঘুরাতলী মোড়ে উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি (ইউসিসি)’র নামীয় মোট ১০৩ শতক জমির মধ্যে ৪০ শতক জমিতে দোকানঘর তৈরী করে ভাড়া দেয়া হয়েছে। বাকী ৬৩ শতক জমি দীর্ঘদিন পড়ে থাকায় জমির পার্শ্ববর্তী মালিকরা পর্যায়ক্রমে জমি দখলের চেষ্টা চালাচ্ছে। সমিতির একাধিক সদস্যের চাপে পড়ে গত বছরের ২২ ডিসেম্বর পল্লী উন্ন্য়ন কর্মকর্তা জিন্নাত আলী দখলদার সোহেল সুইট মিট এর মালিককে ওই সম্পত্তি ছেড়ে দেয়ার নোটিশ দিলেও অদ্যাবধি তা কার্যকর হয়নি।

একটি সুত্র জানায়, হোটেল মালিক রেজওয়ান হোসেন ওই কর্মকর্তার সাথে রফাদফা করে এখন পর্যন্ত বহাল তবিয়তে জমি দখল করে আছে। ফলে জমিটি লিজ নেয়ার জন্য কোন কৃষক আগ্রহ প্রকাশ করছেনা। সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মোঃ মোকাররম হোসেন জানান, পরিত্যক্ত সম্পত্তির ব্যাপারে বারবার পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তাকে পদক্ষেপ গ্রহনের তাগিদ দেয়া সত্বেও তিনি কোন পদক্ষেপ নেননি।

এ ব্যাপারে উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা জিন্নাত আলী জানান, ওই জমিটি কখনই পরিত্যক্ত পড়ে ছিলনা ইতিপূর্বে মোসলেম উদ্দীন নামের এক কৃষককে এক বছরের জন্য ১০ হাজার টাকায় লিজ দেয়া হয়েছিল। পূণরায় লিজের যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য গত ১৯ জুন কার্যনির্বাহী কমিটির সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা আরিফা আরমান আরাকে আহবায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ একটি লিজ কমিটি করে দেয়া হয়েছে।

আহবায়ক আরিফা আরমান আরা জানান, গত ১৮ জুলাই হতে কর্মবিরতী থাকার কারনে লিজ কার্য এখন পর্যন্ত সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য