কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে চলতি ফাজিল ২য় ও ৩য় বর্ষ পরীক্ষা-২০১৬ এ দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে নীলফামারীর সৈয়দপুরে একটি পরীক্ষা কেন্দ্রে কক্ষ পরিদর্শক দুই শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও পরীক্ষায় নকল করার (অসদুপায় অবলম্বন) দায়ে এক পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়।

দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠিত ইংরেজি বিষয়ের পরীক্ষায় সৈয়দপুর উপজেলার সোনাখুলী মুন্সীপাড়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে ওই দুই শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি এবং এক পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়েছে। কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানায়, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ফাজিল স্নাতক ২য় ও ৩য় বর্ষ পরীক্ষা- ২০১৬ ইং গত ৭ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে।

নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার সোনাখুলী মুন্সীপাড়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে থেকে এবারের ওই পরীক্ষায় ১০৯ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। উল্লিখিত সংখ্যক পরীক্ষার্থীরা সকলেই সোনাখুলী মুন্সীপাড়া কামিল মাদ্রাসা থেকে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। ওই পরীক্ষা কেন্দ্রের চারটি কক্ষে ওই পরীক্ষা গ্রহন করা হচ্ছে। দ্বিতীয় দিনে ছিল ইংরেজি বিষয়ের পরীক্ষা।

সোনাখূলী মুন্সীপাড়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে গত বুধবার দ্বিতীয় দিনের পরীক্ষা পরিদর্শনে আসেন কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। তারা হলেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক ড. আব্দুল বারী এবং আল-হাদিস ও ইসলামী স্টাষ্টিকস্ বিভাগেরর শিক্ষক ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান। পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে আসা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা পরীক্ষা শুরু পর পরই পরীক্ষা কেন্দ্র প্রবেশ করেন।

এ সময় নকল করার দায়ে এক পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়। এছাড়াও পরীক্ষা কেন্দ্রে তিন নম্বর কক্ষে কর্তব্যরত কক্ষ পরিদর্শকদের দায়িত্বে অবহেলা দেখতে পান পরীক্ষা পরিদর্শনে আসা প্রতিনিধি দলের সদস্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক ড. আব্দুল বারী। পরে তাঁর নির্দেশে সোনাখুলী মুন্সীপাড়া কামিল মাদ্রাসা’র শিক্ষক মো. রেজাউল করিম ও মো. জাহেদুল ইসলামকে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে।

সোনাখুলী মুন্সীপাড়া কামিল মাদারাসার সুপার ও কেন্দ্র ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ.ব.ম. মনসুর আলী নকলের দায়ে এক পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার ও দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে দুই শিক্ষককে অব্যাহতি প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য