কাতার ৮০টি দেশের নাগরিকদের জন্য ভিসামুক্ত ভ্রমণের সুবিধা দেয়ার যে ঘোষণা দিয়েছে তার তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সৌদি নেতৃত্বাধীন কয়েকটি আরব দেশের সর্বাত্মক অবরোধ আরোপের ফলে দেশটির অর্থনীতিতে যে ক্ষতি হয়েছে তা পুষিয়ে নিতেই এ কর্মসূচি চালু করছে দোহা সরকার।

কাতার যে ৮০টি দেশকে এ সুবিধা দিচ্ছে তার মধ্যে ৩৩টি দেশ ১৮০ দিন বা ছয় মাস কাতারে অবস্থান করতে পারবে। অন্য ৪৭টি দেশের নাগরিকরা ৩০ দিন অবস্থানের সুযোগ পাবে। তবে মাত্র একবারের জন্য এ সময় বাড়ানো যাবে।

যেসব দেশের নাগরিকদের ভিসামুক্ত ভ্রমণের সুযোগ দেয়া হয়েছে তাদের শুধু বৈধ পাসপোর্টের মেয়াদ কমপক্ষে ছয় মাস থাকলেই চলবে। ভিসামুক্ত ভ্রমণ সুবিধার আওতায় যেসব দেশের নাগরিকরা কাতারে ছয় মাস অবস্থান করতে পারবে সেগুলো হচ্ছে- অস্ট্রিয়া, বাহামাস, বেলজিয়াম, বুলগেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া, সাইপ্রাস, চেক রিপাবলিক, ডেনমার্ক, এস্তোনিয়া, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, গ্রিস, হাঙ্গেরি, ইতালি, আইসল্যান্ড, লাটভিয়া, লিথুয়ানিয়া, লুক্সেমবার্গ, লিসটেন্সটেইন, মাল্টা, নেদারল্যান্ড, নরওয়ে, পোল্যান্ড, পর্তুগাল, রোমানিয়া, সিসিলি, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড ও তুরস্ক।

যেসব দেশের নাগরিকরা কাতারে ভিসা ছাড়াই এক মাসের জন্য অবস্থান করতে পারবে সেগুলো হচ্ছে- অ্যান্ডোরা, অস্ট্রেলিয়া, আর্জেন্টিনা, আজারবাইজান, বেলারুশ, বলিভিয়া, ব্রাজিল, ব্রুনাই, কানাডা, চিলি, চীন, কলম্বিয়া, কোস্টারিকা, কিউবা, ইকুয়েডর, জর্জিয়া, গায়ানা, হংকং, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, আয়ারল্যান্ড, জাপান, কাজাখস্তান, লেবানন, মেসিডোনিয়া, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, মেক্সিকো, মলদোভা, মোনাকো, নিউজিল্যান্ড, পানামা, প্যারাগুয়ে, পেরু, রাশিয়া, স্যানমেরিনো, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ আফ্রিকা, দক্ষিণ কোরিয়া, সুরিনাম, থাইল্যান্ড, ইউক্রেন, ব্রিটেন, আমেরিকা, উরুগুয়ে, ভ্যাটিক্যান সিটি ও ভেনিজুয়েলা।

কাতারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা মুহাম্মাদ রাশেদ আল-মাজরুই জানান, পারস্য উপসাগরের এ দেশটিতে ঢোকার জন্য ৮০টি দেশের নাগরিকদের শুধুমাত্র বৈধ পাসপোর্ট থাকলেই চলবে। তিনি জানান, এ ৮০টি দেশকে তাদের নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক বিবেচনায় অথবা তাদের নাগরিকদের ক্রয়ক্ষমতার দিক বিবেচনা করে মনোনীত করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য