মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাঁও থেকেঃ ঠাকুরগাঁওয়ের অভ্যন্তরিন রুটে যত্রতত্র অটোবাইক থামিয়ে অবৈধভাবে চাঁদা নেওয়ার প্রতিবাদে অটো শ্রমিক অধিকার আন্দোলন এর ব্যানারে গণস্বাক্ষর কর্মসুচি পালন করছে বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকেরা।

দুপুরে এ কর্মসুচির উদ্বোধন করা হয়।কর্মসুচি চলবে আগামী ৩০ আগষ্ট পর্যন্ত।

গণস্বাক্ষর কর্মসুচি উদ্বোধনকালে বীর মুক্তিযোদ্ধা মনসুর আলীর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন অটো শ্রমিক অধিকার আন্দোলন এর আহ্বায়ক ফরিদ হোসেন,যুগ্ম আহ্বায়ক বেলাল হোসেন প্রমুখ।

গণস্বাক্ষর কর্মসুচি উদ্বোধনকালে কর্মসুচির সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেন রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের সা: সম্পাদক জামিল হোসেন।

শ্রমিকরা জানায়, প্রতি বছর রেজিষ্ট্রেশন ফি বাবদ ৬৫০ টাকা পৌরসভাকে দেওয়ার পরও আভ্যন্তরিন বিভিন্ন রুটে নামে-বেনামে গাড়ি প্রতি ১০-২০টাকা করে চাঁদা তোলা হচ্ছে। এতে আমাদদের অটো মালিকের ভাড়া ও চাঁদা দিতে দিতে নিজেদের সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়েছে। অটো শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের আহ্বায়ক ফরিদ জানান, একজন অটো শ্রমিক প্রতিদিন আয় করেন ৬০০ টাকা।

এ থেকে অটো মালিককে দিতে হয় ৪৫০ টাকা,বিভিন্ন রুটে ( বাসস্ট্যান্ড, রুহিয়া মোড়, ঠাকুরগাঁও রোড সহ প্রতিটি উপজেলায়) চাঁদা দিতে হয় ৮০-১০০, সারাদিন নিজের খাওয়া খরচ লাগে ৫০-৬০ টাকা। সে হিসেবে অটো শ্রমিকরা সারাদিন খেটে বেশিরভাগ সময় বাড়ী ফেরে শুন্য হাতে। অথচ শ্রমিকদের উন্নয়নের কথা বলে যে চাঁদা তোলা হচ্ছে তা আদৌ কোন শ্রমিক পায়নি।

এর আগে গত জুলাই মাসের ছয় তারিখে আমরা মানববন্ধন সহ ডিসি অফিস ঘেরাও কর্মসুচি পালন করেছি কিন্তু কোন ফলপ্রসু সমাধান আমরা পাইনি। আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। আমরা এর প্রতিকার চাই। তাই আমাদের এ আন্দোলনে আপামর জনগনকে সম্পৃক্ত করতে গণস্বাক্ষর কর্মসুচি হাতে নেওয়া হয়েছে। চলবে ৩০ আগষ্ট পর্যন্ত।সেদিন আমরা মানববন্ধন পালন সহ জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি প্রদান করবো। তবে দাবি আদায় না হলে কঠোর কর্মসুচির ঘোষণা আসতে পারে এমনটিই বল্লেন শ্রমিক নেতারা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য