আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রভাষকসহ ৫জনকে মারপিটের দায়ে ৩জনকে জেলহাজতে পাঠিয়েছন আদালত।রোববার দুপুরে এ আদেশ দেন লালমনিরহাট জজ আদালতের বিচারক সিনিয়র চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফেরদৌসী বেগম। এরা হলেন, আদিতমারী উপজেলা ভাদাই সজিব বাজার এলাকার সাজু মিয়ার ছেলে সজিব মিয়া(২৪), একই এলাকার নবির হোসেনের ছেলে লিটন মিয়া(৩২) ও সবুজ মিয়া(৩০)।

আদালত সুত্রে জানা গেছে, সজিব বাজার এলাকার আব্দুস সামাদের ছেলে ছেয়াদুল হক ১৯৯২ সালে তার বাড়ির পার্শ্বে ৩৩ শতাংশ জমি ক্রয় করে ভোগ দখল করে আসছেন। তাদের ভোগ দখলিয় জমি হঠাৎ জবর দখলের চেষ্টা চালায় ওই গ্রামের শহর উল্লার ছেলে সাজু, মঞ্জু ও ফজলু গংরা।৯ জুলাই সেই জমি সাজু গংরা দলবলসহ জবর দখলের চেষ্টা চালায়।

এ সময় ছেয়াদুল হক বাঁধা দিলে দেশিও অস্ত্রে হামলা চালায়। ছেয়াদুলকে বাঁচাতে গিয়ে তার ভাই প্রভাষক মঞ্জুম আলীসহ ৫জন গুরুতর জখম হন। পুলিশী সহায়তায় তাদেরকে রংপুর মেডেকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।এ ঘটনায় ১১ জুলাই প্রভাষক মঞ্জুম আলী বাদি হয়ে দখরবাজদের ৯জনকে আসামী করে আদিতমারী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় হাজির হয়ে ৪জন আদালতের কাছে জামিনের আবেদন করলে ৩জনের জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

বাদি পক্ষের আইনজীবি অ্যাডভোকেট রাজু মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই হামলার ঘটনায় আহতরা এখনো হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

আদালতের পুলিশ পরিদর্শক(ওসি) ইসমাইল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য